ঢাকা, বাংলাদেশ

মঙ্গলবার, আষাঢ় ৩ ১৪৩১, ১৮ জুন ২০২৪

English

রাজনীতি

বিরোধিতার জন্য বাজেটের বিরোধিতা নয়: রওশন

উইমেনআই প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১৩:১৮, ৮ জুন ২০২৪

বিরোধিতার জন্য বাজেটের বিরোধিতা নয়: রওশন

ছবি সংগৃহীত

শুধু বিরোধিতার জন্য প্রস্তাবিত বাজেটের বিরোধিতা করবে না রওশন এরশাদের নেতৃত্বাধীন জাতীয় পার্টি। বাজেট প্রণয়নে সরকারের আন্তরিকতার পরিচয় পেয়েছে বলেও জানিয়েছে জাতীয় পার্টির এই অংশটি।

শনিবার (৮ জুন) দলের প্রেসিডিয়াম সদস্যদের প্রথম বৈঠক করে জাতীয় পার্টি (রওশন)। বৈঠকর আগে ২০২৪-২৫ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট নিয়ে প্রতিক্রিয়া জানান সাবেক এই বিরোধী দলীয় নেতা।

রওশন বলেন, ‘দেশকে এগিয়ে নেবার জন্য বাজেটের আয়তন বড় করতেই হবে। হয়তো আগামীতে আমরা আরো বড় বাজেট দেখতে পাবো। আমরা বিরোধী অবস্থানে আছি বলে- বিরোধিতার স্বার্থেই একটা জাতীয় বাজেট পেশ হবার পর তার বিরোধিতা করতে হবে- এই নীতিতে আমরা বিশ্বাসী নই। আমরাও সরকারে ছিলাম এবং বাজেট প্রণয়ন করেছি। আমি বিশ্বাস করি কোনো সরকারই দেশ ও জনগনের স্বার্থের পরিপন্থী কোনো বাজেট প্রণয়ন করে না। দেখতে হবে- প্রণীত বাজেট বাস্তবায়নে সরকার দক্ষতার পরিচয় দিতে পারে কি না।’

৬ জুন (বৃহস্পতিবার) দেশের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় বাজেট জাতীয় সংসদে উপস্থাপন করা হয়। প্রস্তাবিত এ বাজেটের আকার ধরা হয় ৭ লাখ ৯৭ হাজার কোটি টাকা। বিশাল অঙ্কের এ বাজেটের ঘাটতি ধরা হচ্ছে ২ লাখ ৫১ হাজার ৬০০ কোটি টাকা। আর অনুদান ছাড়া ঘাটতির পরিমাণ দাঁড়াবে ২ লাখ ৫৬ হাজার কোটি টাকা। যা মোট জিডিপির ৪ দশমিক ৬ শতাংশ।

সংসদের বিরোধী দল জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জি এম কাদের এই বাজেটকে ‘গতানুগতিক’ বলে আখ্যা দিয়েছে।

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জি এম কাদেরের সঙ্গে দ্বন্দ্বের কারণে দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে অংশ নেননি রওশন এবং তার ছেলে সাদ এরশাদসহ কয়েকজন নেতা। ভোটের পর রওশন নিজেকে চেয়ারম্যান ঘোষণা করেন। তবে তাতে পাত্তা দেননি জি এম কাদের।

গত ২৮ জানুয়ারি জাতীয় পার্টি থেকে জি এম কাদের ও মুজিবুল হক চুন্নুকে অব্যাহতি দেন দলের রওশন এরশাদ। রওশনের বক্তব্য জি এম কাদের এবং মুজিবুল হক চুন্নুকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়নি। তাদের অব্যাহতি দেয়া হয়েছে।

দ্বাদশ জাতীয় সংসদে ২৬টি আসনে আওয়ামী লীগের সঙ্গে আসন ভাগাভাগি করে জাতীয় পার্টি। ভোটে জেতে ১১টি আসনে। নির্বাচনে এই ভরাডুবির জন্য দলের অনেক নেতা-কর্মী চেয়ারম্যান এবং জি এম কাদেরকে দায়ী করে বিক্ষোভও করেছেন। পরে কাজী ফিরোজ রশীদসহ বেশি কয়েকজন নেতাকে বহিষ্কার করেন জি এম কাদের।

গত ৯ মার্চ সম্মেলন করেন রওশনপন্থিরা। রওশন হন চেয়ারপারসন। মহাসচিব কাজী মামুনুর রশীদ।

বাজেট প্রতিক্রিয়ায় রওশন এরশাদ বলেন, এই বৃহৎ বাজেটকে আমরা ইতিবাচক দৃষ্টিকোণ থেকে দেখতে চাই। দেশে সার্বিকভাবে বিরাজমান অর্থনৈতিক পরিস্থিতি মোকাবিলার মতো সকলের কাছে মনঃপুত একটা জাতীয় বাজেট প্রণয়ন করা খুবই কঠিন কাজ। এই বাজেট প্রণয়নে আমি সরকারের আন্তরিকতার পরিচয় পেয়েছি। এই বাজেটের সফল বাস্তবায়ন হোক- আমরা সেটাই আশা করবো। এই বাজেটকে আমরা আরো গভীরভাবে পর্যালোচনা করবো। দেশ ও জনস্বার্থের কথা চিন্তা করে- বাজেট বাস্তবায়নে আমাদের পরামর্শ সরকারের কাছে তুলে ধরবো।

তিনি বলেন, ‘আমরা জানি, বিশ্বব্যাপী দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগতি বিরাজ করছে। আমরাও সেই সমস্যা ভোগ করছি। তাছাড়াও দেশে ঘুষ-দুর্নীতি, বেকারত্ব, স্বাস্থ্যসেবা সমস্যা এবং পরিবেশগত বিপর্যের মুখোমুখি আমাদের হতে হচ্ছে। এসব সমস্যা আমাদের সম্মিলিত ভাবে মোকাবিল করতে হবে। যে কোনো জাতীয় সমস্যা সমাধানের জন্য সাহায্য চাইলে আমরা অবশ্যই আমাদের সাধ্য মতো সহযোগিতা করবো।’

সরকার দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে কার্যকরী পদক্ষেপ নেবে আশা করে জাতীয় পার্টির একাংশের এই চেয়ারপারসন বলেন, আমি আশা করছি, এই বাজেট পাশের আগে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ, বেকার সমস্যা সমাধানের উদ্যোগ গ্রহণ, গ্রামীন জনগণের জীবনযাত্রার মান উন্নয়নে পদক্ষেপ গ্রহণ, ঘুষ ও দুর্নীতি প্রতিরোধে সরকার আরো কঠোর অবস্থান গ্রহণ করবেন।

ইউ

উত্তরে শতভাগ, দক্ষিণে ৮৫ শতাংশ বর্জ্য অপসারণ

গণভবনে ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় করলেন প্রধানমন্ত্রী

বৃষ্টিতে ডুবলো সিলেট, ঈদ আনন্দ ম্লান

রাত ৮টার মধ্যেই পরিষ্কার হবে ডিএনসিসির বর্জ্য: আতিকুল ইসলাম

ঈদের নামাজে দেশ ও মুসলিম উম্মাহর শান্তি কামনা

হজের দিনে আরাফাতের ময়দানে নারীর সন্তান প্রসব

জাতীয় ঈদগাহে নামাজ পড়লেন রাষ্ট্রপতি

ঈদের নামাজ শেষে ফিলিস্তিনের জন্য বিশেষ মোনাজাত

মহল্লায় মহল্লায় চলছে পশু কোরবানি

ইতিহাস গড়ে সুপার এইটে বাংলাদেশ

নেপালের বিপক্ষে টস হেরে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ

বায়তুল মোকাররমে ঈদুল আজহার প্রথম জামাত অনুষ্ঠিত

জাতীয় ঈদগাহে ঈদুল আজহার প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত

পবিত্র ঈদুল আজহা আজ

ঈদের আগে রিজার্ভ বেড়ে ১৯ বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়েছে