বুধবার, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯
১৮ মে ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
যুক্ত থাকুন

আর্কাইভ
সর্বশেষ

যশোরে ই-কমার্সের নামে দুই কোটি টাকা আত্মসাৎ

উইমেনআই২৪ প্রতিবেদক: যশোরের চৌগাছায় ইউনিক ওয়ার্ল্ড লিমিটেড নামে একটি ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান অর্ধশত গ্রাহকের প্রায় দুই কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে।

উপজেলার একটি প্রতারক চক্র প্রতিষ্ঠানটির অ্যাপসের মাধ্যমে আইডি খুলে এবং সুপার সপ ‘ইউনিক মার্ট ও ইউনিক রেস্টুরেন্ট’ চালু করে। প্রতিষ্ঠানগুলোতে বিনিয়োগের মাধ্যমে অধিক লাভের প্রলোভন দেখিয়ে গ্রাহকের টাকা আত্মসাৎ করেছে চক্রটি।

মঙ্গলবার (১৯ এপ্রিল) চৌগাছা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগীরা।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠকালে উপজেলার বাড়ীয়ালী গ্রামের বাসিন্দা ফটোকপি ব্যবসায়ী আব্দুর রশিদ রাজু বলেন, ইউনিক ওয়ার্ল্ড লিমিটেড নামের ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান যার প্রধান কার্যালয় ঢাকার মালিবাগ রেলগেট এলাকার আয়েশা কমপ্লেক্সে। ৬৪ জেলায় সুপার সপ, রেস্টুরেন্ট, কোমল পানীয় প্রতিষ্ঠান, জুতার কারখানা ইত্যাদি প্রতিষ্ঠা করে সেখান থেকে আমাদের লভ্যাংশ দেয়ার নাম করে গ্রাহকের লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়ে গেছে। তারা চৌগাছা শহরের মেইন বাসস্ট্যান্ডে পুরাতন সোনালী ব্যাংক ভবনের দ্বিতীয় তলায় ইউনিক মার্ট ও ইউনিক রেস্টুরেন্ট নামে দুটি প্রতিষ্ঠান খুলে বসে। ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানটির চৌগাছা উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষ ও চৌগাছার ডিভাইন কফি সপে ইউনিক মার্ট সুপার সপের বিভিন্ন কনফারেন্সের মাধ্যমে আমাদের উদ্বুদ্ধ করে। তারা মূলত চৌগাছার স্থানীয় কিছু অসাধু ও বাটপার মানুষের দ্বারা তাদের এই কার্যক্রম পরিচালনা করত। তাদের সমন্বয়ে ইউনিক ওয়ার্ল্ডের গ্রাহককে প্রলোভন দেখিয়ে টাকা তুলেছে।

ভুক্তভোগীদের অভিযোগ, কোম্পানির চৌগাছার ইউনিক মার্ট সুপার সপ ও ইউনিক রেস্টুরেন্টের মাধ্যমে চৌগাছা পৌরসভার বাকপাড়া গ্রামের হাসিবুল হাসান শান্তর ১০ লাখ ৫০ হাজার, নাজমুল কবীরের ৭ লাখ ৫০ হাজার, রেহেনা পারভীনের ৩ লাখ, রুমা আক্তারের ২ লাখ, জাহিদ হাসানের ৪ লাখ, উপজেলার বাড়িয়ালী গ্রামের আব্দুর রশিদ রাজুর ৪ লাখ, ফুলসারা গ্রামের ফয়সাল আহমেদের ২ লাখ ৬০ হাজার ছাড়াও রহমাত আলী সেতুর ১৬ লাখ, মুনজুরুল সোহাগের ১২ লাখ ১৫ হাজার, মারুফ হোসেনের ১ লাখ ৩২ হাজার, ইকরামুলের ২ লাখ, রেজওয়ানের ১ লাখ ৩৫ হাজারসহ বিভিন্ন গ্রামের বিভিন্ন গ্রাহকের প্রায় দুই কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়ে গেছে চক্রটি।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন রহমত আলী সেতু, ফয়সাল আহমেদ, হাসিবুল হাসান শান্ত, নাজমুল কবীর, জিহাদ হোসেন, আমীর হামজা, রেজওয়ান ইসালম।

ভুক্তভোগীরা জানান, তাদের পাওনা টাকার বিপরীতে বিভিন্ন অঙ্কের টাকার চেক দিয়েছিল কোম্পানিটির কর্মকর্তারা। সেসব হিসাবে টাকা না থাকায় ইতিমধ্যেই চেক ডিজ-অনারের প্রস্তুতি নিয়েছেন কয়েকজন। ইতোমধ্যে উকিল নোটিশ পাঠানো হলেও তাদের স্থায়ী ঠিকানায়ও কাউকে পাওয়া যায়নি। চৌগাছার যারা কোম্পানিটির সঙ্গে জড়িত ছিল তারা এলাকা ছেড়ে পালিয়ে গেছেন এবং মোবাইল ফোন বন্ধ রেখেছেন। এছাড়া কোম্পানিটির ঢাকা কার্যালয়ে কোম্পানির চেয়ারম্যান নুরুজ্জামান হীরা, ব্যবস্থাপনা পরিচালক আব্দুস সালাম, এডমিন ডিরেক্টর মাসুদ রানা, চৌগাছা উপজেলা কর্মকর্তা ফয়সাল আহমেদের সঙ্গে যোগাযোগ করলেও তারা সাড়া দিচ্ছেন না।

এ বিষয়ে অভিযুক্তদের মোবাইল ফোন বন্ধ থাকায় বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

উইমেনআই২৪ডটকম/জে//২০-০৪-২০২২//০৪.৩৭ পি এম

Mujib Borsho

সর্বশেষ

শীর্ষ সংবাদ:
‘মুজিব’ পোস্টারে ছেয়ে গেছে কান প্রাঙ্গণ         গ্রামীণফোনের স্কিল ডেভেলপমেন্ট সেন্টার উন্মোচন         রাজীব গান্ধী হত্যায় দণ্ডিত আসামি ৩১ বছর পর মুক্ত         ‘সুবিধা নিতেই নির্বাচনী মাঠ গরম করতে চাইছে বিএনপি’         অ্যান্টিবায়োটিকের যথেচ্ছ ব্যবহার রোধে সিদ্ধান্ত         বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর সুপারিশ         মালামাল কিনতে এসে অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে ব্যবসায়ী         এনায়েত উল্লাহ আব্বাসীর বিরুদ্ধে মামলা         জাতীয় জাদুঘরকে আধুনিকায়ন করার উদ্যোগ: সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী         ‘মিশন এক্সট্রিম’-এর দুই পুরস্কার         প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে টেস্টে মুশফিকের ৫ হাজার রান         বজ্রসহ বৃষ্টির আভাস         সিরাজগঞ্জে ট্রাক চাপায় শিশু ও নারী নিহত         কক্সবাজারে যত্রতত্র স্থাপনা নির্মাণ না করার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর         কানের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে জেলেনস্কির ভাষণ         মুশফিক-লিটন জুটির সেঞ্চুরি         অল্প পরিচিত পুরুষের যৌন ইঙ্গিত বুঝবেন যেভাবে         মধুমাসে রসালো ফলে ভরপুর যশোরের বাজার         বরগুনায় অগ্নিকান্ডে ১৭০টি দোকান পুড়ে গেছে         বুস্টার ডোজ নিয়েছেন ১কোটি ৩৮ লাখ ২৭ হাজার ২৩জন         সম্রাটের জামিন বাতিল