সোমবার, ৪ মাঘ ১৪২৮
১৭ জানুয়ারী ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
যুক্ত থাকুন

আর্কাইভ
সর্বশেষ

যুক্তরাষ্ট্র সবসময়ই বিভিন্ন দেশকে চাপে রাখতে চায়: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার:  
পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আবদুল মোমেন বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র সবসময়ই নানা ইস্যুতে বিভিন্ন দেশকে চাপে রাখতে চায়। কখনও গণতন্ত্রের কথা বলে, কখনও সুশাসন; আবার কখনও সন্ত্রাসবাদ আর দুর্নীতি। এটি একটি রাজনীতি।  


তিনি বলেন, কে দাওয়াত দিল না দিল তাতে কিছু আসে যায় না, আমাদের গণতন্ত্র আমাদেরই ঠিক করতে হবে। অন্য কেউ ঠিক করে দেবে না।

শুক্রবার সকালে সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে নবনির্মিত কার্গো টার্মিনাল পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এসব কথা বলেন।  

সকাল ৯টার দিকে সিলেটে পৌঁছান পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আবদুল মোমেন। বিমানবন্দরে নেমেই নির্মাণাধীন নতুন কার্গো টার্মিনাল ঘুরে দেখেন তিনি। এ সময় সঙ্গে ছিলেন জেলা প্রশাসক কাজী এমদাদুল ইসলাম, ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের ব্যবস্থাপক হাফিজ উদ্দিন আহমেদ,  জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শফিকুর রহমান চৌধুরী, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক জাকির হোসেনসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ।  

পরে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন আবদুল মোমেন। এ সময় যুক্তরাষ্ট্রের গণতন্ত্র সম্মেলনে দাওয়াত না পাওয়ার বিষয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, এ নিয়ে এত চিন্তা কেন। সম্মেলন তো শত শত হচ্ছে দুনিয়াজুড়ে, আর নতুন বাইডেন প্রশাসন একটি উদ্যোগ নিয়েছে। বেচারা খুব কষ্ট করে এটা করেছে। এখনও ক্যাপিটালের যে ঘটনা তা সামাল দিতে হচ্ছে। এ রকম একটি পরিপক্ব গণতান্ত্রিক দেশ সেখানেও ঝামেলা হয়। সেদিক দিয়ে আমরা খুব ভালো আছি। আর গণতন্ত্র অন্য কেউ শেখাবে না। দেশের লোকজনই শেখায়।

তিনি বলেন, বাংলাদেশে অনেক বছর ধরে স্থিতিশীল গণতন্ত্র আছে। সব দেশেরই ব্যত্যয় আছে, দুর্বলতা আছে। সব বিষয় সামনে নিয়ে দিনে দিনে যাতে ভালো করতে পারি তা আমাদেরই ঠিক করতে হবে। অন্যের ফরমায়েশে গণতন্ত্র হয় না। শুধু মুখে বললে হবে না মনমানসিকতা থাকতে হবে। আমাদের দেশে সহনশীলতা আরও বাড়াতে হবে। একে অন্যের প্রতি শ্রদ্ধাবোধ বাড়াতে হবে। আমরা আমাদের গণতন্ত্র শক্তিশালী করব। কে দাওয়াত দিল না দিল তা নিয়ে দুশ্চিন্তা কেন। বরং আমাদের চিন্তা করা উচিত— আগামী নির্বাচনে যাতে একটি লোকও মারা না যায়, কোথাও কোনো বিচ্যুতি থাকলে তা সমাধান করার চেষ্টা করব।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, এ দেশে একসময় গণতন্ত্র ছিল না, দেশের মানুষই গণতন্ত্র এনেছে। আমাদেরই চেষ্টা করতে হবে। আমেরিকার গণতন্ত্রের নমুনা তো দেখেছি। গণতন্ত্র সম্মেলনে কোন কোন দেশকে দাওয়াত দিয়েছে তাও দেখেছি। কাকে দাওয়াত দেবে এটিও তাদের বিষয়।


উইমেনআই২৪ ডটকম//এসএল//
 

 

Mujib Borsho

সর্বশেষ

শীর্ষ সংবাদ:
পঞ্চগড়ে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ         হার দিয়ে বিশ্বকাপ শুরু বাংলাদেশের         মা হারালেন চিরকুটের সুমি         বিশ্বে করোনাভাইরাসে একদিনে শনাক্ত ও মৃত্যু কমেছে         অবশেষে পদত্যাগ করলেন শাবির সেই প্রভোস্ট         বাণিজ্য মেলায় শিশুদের জন্য চালু হলো দুটি জাম্পিং হাউজ         'জনস্বার্থকে সবকিছুর ঊর্ধ্বে স্থান দিতে হবে'         ‘মেশিনে ভোট দেওয়া সোজা’         হ্যাটট্রিকের পর আইভী যা বললেন         ইসলামী ব্যাংকে দুই দিনব্যাপী ব্যবসায় উন্নয়ন সম্মেলন         শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা, হল ছাড়ার নির্দেশ         যুক্তরাষ্ট্রে জিম্মি ঘটনার নেপথ্যে পাকিস্তানি বিজ্ঞানী আফিয়া সিদ্দিকী         বিচারপতি টিএইচ খান আর নেই         শীতে প্রবীণদের যত্নে পাঁচ পরামর্শ         আইভীর হ্যাট্রিক জয়         নারায়ণগঞ্জ সিটি আমাদের সর্বোত্তম নির্বাচন: মাহবুব তালুকদার         রাজধানীতে অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পুলিশ সদস্য         লুডুকে ‘অলৌকিক শক্তি’ মানতেন যারা         বড় ব্যবধানে এগিয়ে আইভী         ধরে নিয়ে যাওয়া সেই দুই ছাত্রকে ফেরত দিল বিএসএফ         বিশ্বকাপ ধরে রাখার মিশনে টস জিতে ব্যাটিংয়ে যুবারা