বৃহস্পতিবার, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৮
০২ ডিসেম্বর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
যুক্ত থাকুন

আর্কাইভ
সর্বশেষ

ইংল্যান্ডের ক্রিকেট ক্লাবগুলো বর্ণবিদ্বেষী-আজিম রাফিক

ব্রিটিশ সংসদে জবানবন্দি দিচ্ছেন আজিম রাফিক

র্স্পোটস ডেস্ক: ইংল্যান্ডের খ্যাতনামা ক্রিকেট ক্লাবগুলোর অন্যতম, ইয়র্কশায়ার-এর প্রাক্তন খেলোয়াড় আজিম রাফিক দেশের ক্রিকেটকে 'প্রাতিষ্ঠানিকভাবে' বর্ণবাদী বলে আখ্যায়িত করেছেন।

ব্রিটিশ সংসদের ডিজিটাল, সংস্কৃতি, মিডিয়া ও স্পোর্টস কমিটিকে দেয়া বক্তব্যে ৩০-বছর বয়স্ক রাফিক বলেন, তিনি যখন ইয়র্কশায়ার-এ খেলতেন তখন বর্ণবাদী ভাষা 'সারাক্ষণ' ব্যবহার করা হত।

এক আবেগঘন জবানবন্দিতে তিনি বলেন যে, ২০১৭ সালে তার সন্তান জন্মের সময় মারা যাবার পর ইয়র্কশায়ার ক্লাব তার সাথে 'অমানবিক' আচরণ করে।

তিনি আরো বলেন, ইয়র্কশায়ার-এ তিনি যেসব পরিস্থিতির মুখোমুখি হয়েছিলেন তা ইংল্যান্ডের ঘরোয়া ক্রিকেটে যে ব্যাপক ভাবে ঘটছিল, তা নিয়ে 'কোন সন্দেহ নেই।'

রাফিক বলেন যে বর্ণবাদের কারণে তার ক্যারিয়ার শেষ হয়ে যাওয়াটা একটি 'জঘন্য অনুভূতি।' তবে তিনি আশা করছেন, বর্ণবাদের ব্যাপারে সোচ্চার হবার ফলে 'পাঁচ বছর পরে ব্যাপক পরিবর্তন' আসতে পারে।

''আমি শুধু চেয়েছি ঘটনার সত্যতা মেনে নেয়া হবে, ক্ষমা চাওয়া হবে, উপলব্ধি হবে। এবং আসুন, আমরা এক সাথে কাজ করে চেষ্টা করি যাতে এগুলো ভবিষ্যতে আর কখনো না ঘটে,'' তিনি বলেন।

''এটা ছেড়ে দেবার কোন ইচ্ছা আমার ছিল না, তা আমার জন্য যতই ক্ষতিকর হোক না কেন। যারা কথা বলতে পারে না, তাদের হয়ে কথা বলার জন্য আমি বদ্ধ পরিকর।''

রাফিক বর্ণবাদী হয়রানি আর বুলিং-এর শিকার হয়েছেন বলে একটি তদন্ত রিপোর্টে প্রকাশ হবার পর সংসদ সদস্যদের সামনে তিনি সাক্ষ্য দিচ্ছিলেন। তবে ইয়র্কশায়ার বলেছে তারা কারও বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে না।

মাইকেল ভন আর ডেভিড লয়েড

আজিম রাফিক অন্তত দু'জন মহারথীর দিকে আঙুল নির্দেশ করেছেন। তিনি প্রাক্তন ইংল্যান্ড ক্যাপ্টেন মাইকেল ভন এবং প্রাক্তন ইংল্যান্ড কোচ ডেভিড লয়েড-এর বিরুদ্ধে বর্ণবাদী আচরণের অভিযোগ তোলেন।

ভন অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তবে লয়েড এক বিবৃতিতে কাওকে আঘাত করে থাকলে ক্ষমা প্রার্থনা করেন।

ইংল্যান্ডের হয়ে খেলার 'স্বপ্ন'

সংসদ সদস্যদের সামনে তার জবানবন্দিতে রাফিক আরো বলেন:

  • তিনি শুধু চেয়েছিলেন ইংল্যান্ডের হয়ে খেলার 'স্বপ্ন' পূরণ করতে।
  • বর্ণবাদী ভাষা, বিশেষ করে পাকিস্তানী বংশোদ্ভূতদের লক্ষ্য করে কয়েকটি বিশেষণ, সব সময় ব্যবহার করা হত, এবং তিনি যত দিন ইয়র্কশায়ার-এ ছিলেন তত দিন এই বর্ণবিদ্বেষী ভাষার বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেয়া হয় নি।
  • এই ধরনের বিশেষণের ব্যবহার ছিল বর্ণবাদী, শুধু গাল-গল্প নয়।
  • দলের সদস্যদের সামনে বর্ণবাদী মন্তব্য ছুঁড়ে দেয়া হচ্ছিল কিন্তু কোচরা কোন হস্তক্ষেপ করেন নি। এর ফলে তিনি নিজেকে বিচ্ছিন্ন এবং চরম অপমানিত মনে করছিলেন।
  • বর্ণবাদী ভাষার ব্যবহার এতই প্রচলিত ছিল যে, সেটাই 'স্বাভাবিক' হয়ে যায় এবং ক্লাবের সদস্যরা 'মনে করেন নি এটা অন্যায়।'
  • ইয়র্কশায়ার-এ প্রথম দফায় খেলার সময়, ২০১৪ সাল পর্যন্ত, তিনি সমস্যার ব্যাপকতা পুরোপুরি বুঝে উঠতে পারেন নি।
  • তিনি যখন ২০১৬ সালে ফিরে এলেন, তার মনে হয়েছিল ক্লাবে হয়তো কিছু পরিবর্তন এসেছে।
  • তবে ২০১৬ সালের শেষের দিকে গ্যারি ব্যালান্স ক্যাপ্টেন হবার পর ক্লাবের পরিবেশ 'বিষাক্ত' রূপ ধারণ করে।

ইয়র্কশায়ার এর প্রাক্তন চেয়ারম্যান রজার হাটন পরবর্তীতে সংসদীয় কমিটির সামনে বক্তব্য রাখেন, এবং তারপর বক্তব্য দেন ইংল্যান্ড এবং ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান নির্বাহী টম হ্যারিসন।

হাটন রাফিকের কাছে 'গভীরভাবে ক্ষমা প্রার্থনা' করেন। তিনি বলেন ক্লাবের ক্রিকেট পরিচালক মার্টিন মক্সন এবং প্রাক্তন প্রধান নির্বাহী মার্ক আরথার 'পরিস্থিতির গুরুত্ব গ্রহণ করতে সক্ষম হয় নি।'

''তারা ক্ষমা প্রার্থনা করতে চায় নি, অথবা প্যানেলের পরামর্শ গ্রহণ করতে চায় নি,'' তিনি বলেন।

সংসদ সদস্য ডেমিয়েন গ্রিন যখন আজিম রাফিককে জিজ্ঞেস করেন তিনি কি মনে করেন ক্রিকেট প্রাতিষ্ঠানিকভাবে বর্ণবাদী, রাফিক উত্তর দেন: ''হ্যাঁ, আমি তাই মনে করি।''

আরেকটি নাম করা ক্লাব, এসেক্স-এর বিরুদ্ধে বর্ণবাদের অভিযোগ উঠেছে।

গত সপ্তাহে এসেক্স-এর চেয়ারম্যান জন ফারাহার-এর বিরুদ্ধে ২০১৭ সালের বোর্ড মিটিং-এ বর্ণবাদী ভাষা ব্যবহার করার অভিযোগ ওঠার পর তিনি পদত্যাগ করেন। তবে তিনি অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

রাফিক সমস্যার ব্যাপকতাকে 'ভয়ঙ্কর' বলে বর্ণনা করেছেন, এবং বলেছেন ঘটনা ধামা-চাপা দেয়ার চেষ্টা করা হয়েছে।

তিনি বলেন বর্ণবাদের কারণে ২০১০ সালের পর পেশাজীবী ক্রিকেটে এশিয়ান বংশোদ্ভূত খেলোয়াড়দের সংখ্যা ৪০ শতাংশ কমে গিয়েছে। তিনি বলেন এশিয়ান আর কৃষ্ণাঙ্গ খেলোয়াড়রা বর্ণবাদের শিকার হবার ফলে ইংল্যান্ড অনেক প্রতিভা হারিয়েছে।

বর্ণবাদ বিরোধী সংগঠন হোপ নট হেইট এর প্রধান নির্বাহী নিক লোওলস বলেন রাফিকের জবানবন্দি দেখতে তার 'হৃদয় ভেঙ্গে' গেছে।

''তাকে যারা হেনস্তা করেছে তাদের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়ে রাফিক যে সাহস দেখিয়েছেন সেটা যেন মোড় ঘুরিয়ে দেয় - এটা একটা সুযোগ, যাতে আমরা আজিমের সাথে সংহতি প্রকাশ করতে পারি এবং স্পোর্টস জগত থেকে বর্ণবাদকে চিরতরে বের করে দিতে পারি,'' তিনি বলেন।

রাফিক প্রথম সোচ্চার হন গত বছর। তিনি বলেন ইয়র্কশায়ার এর 'প্রাতিষ্ঠানিক বর্ণবাদ তাকে আত্মহত্যার দ্বারপ্রান্তে ঠেলে দিয়েছিল।

গত মাসে একটি নিরপেক্ষ প্যানেল তার ৪৩টি অভিযোগের সাতটির পক্ষে প্রমাণ খুঁজে পায়। রিপোর্টে বলা হয় রাফিক ইয়র্কশায়ার ক্লাবে বর্ণবাদী হয়রানি ও বুলিং এর শিকার হয়েছিলেন।

তবে ইয়র্কশায়ার ঘোষণা দেয় তারা কারও বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেবে না।

হাটন এবং আরথার পরবর্তীতে পদত্যাগ করেন। লর্ড প্যাটেল হাটনের স্থলাভিষিক্ত হন এবং তিনি রাফিকের কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করেন।

ইংল্যান্ড ও ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড ইয়র্কশায়ার এর স্টেডিয়ামে সাময়িকভাবে কোন আন্তর্জাতিক ম্যাচ আয়োজন বন্ধ রেখেছে।

 

উইমেনআই২৪//এলআরবি//

Mujib Borsho

সর্বশেষ

শীর্ষ সংবাদ:
এইচএসসি পরীক্ষা বৃহস্পতিবার শুরু, মানতে হবে ১৬ নির্দেশনা         জনগণকে ‘কম খাওয়ার’ নির্দেশ দিলেন কিম জং উন         দেশে ফিরেছে নারী দল         বর্জ্য থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন চুক্তিতে নতুন অধ্যায়ে দেশ         সমকালের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মোজাম্মেল হোসেন         উড়োজাহাজের ধাক্কায় ২ গরুর মৃত্যু, ৪ আনসার প্রত্যাহার         আরো ১২১ ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে         গ্রেপ্তার ভয়ে পুরুষশূন্য গ্রাম, আতঙ্কে নারী-শিশু         বৈশ্বিক কোভিড সহনশীলতা সূচকে ১৮ ধাপ উন্নতি বাংলাদেশের         এইচএসসি পরীক্ষা নিয়ে ডিএমপির যেসব নিষেধাজ্ঞা         নভেম্বরে ৩২৬ নারী ও কন্যাশিশু নির্যাতন শিকার         নেত্রকোণায় দাদন ব্যবসায়ীর হয়রানির প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন         ‘ঠিকানাহীন’ শোভা এখন বুয়েটে         ঢাকায় বাংলাদেশ ও পাকিস্তান দল         শিক্ষা-গবেষণা ও ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনার আহ্বান         ২৪ ঘণ্টায় ২৮২ জন শনাক্ত         নবাবগঞ্জে বিশ্ব এইডস দিবস পালন         সৌদি আরবে করোনার নতুন ধরন ওমিক্রন শনাক্ত         শিক্ষার্থী নাঈমের নামে ফুটওভার ব্রিজ নির্মাণের ঘোষণা         শ্লীলতাহানির মামলায় নারাজির আবেদন পরীমনির