শনিবার, ৮ কার্তিক ১৪২৮
২৩ অক্টোবর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
যুক্ত থাকুন

আর্কাইভ
সর্বশেষ

নারী নির্যাতনের চার প্রকার ভেদ

উইমেনআই২৪ প্রতিবেদক: প্রতিদিনই কেউ না কেউ শারীরিক বা যৌন নির্যাতনের শিকার হয়ে এই সেবাকেন্দ্রে আসছেন। এখানকার কর্মকর্তারা নারী নির্যাতনের পেছনে চারটি কারণও চিহ্নিত করেছেন। এসব হলো যৌতুক, স্বামীর পরকীয়া বা দ্বিতীয় বিয়েতে বাধা, স্বামীর মাদকাসক্তি ও ভরণপোষণ দিতে না চাওয়া।

নারী নির্যাতনের চার প্রকার ভেদ 

আট বছর ধরে যৌতুকের দাবিতে স্বামী মিলন হাওলাদার মারধর করে আসছেন পোশাকশ্রমিক মাহফুজা বেগমকে। নানা সময়ে দাবিমতো কিছু টাকাও দিয়েছেন মাহফুজা। কিন্তু সর্বশেষ ছয় মাস ধরে পাঁচ লাখ টাকা দাবি করছেন স্বামী। টাকা দিতে না পারায় গত ২০ জানুয়ারি নির্মমভাবে মাহফুজাকে মারধর করেন স্বামী, স্বামীর বোন ও ভগ্নিপতি। মার খেয়ে গুরুতর আহত অবস্থায় তিনি ভর্তি হন চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের সেবাকেন্দ্র ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি)।
 

ওসিসি ভাষ্যমতে, পরিসংখ্যানে দেখা যাচ্ছে, ২০১৫ সালে মোট ৪৬৯ জন নারী ও শিশু এই কেন্দ্রে ভর্তি হয়েছে। এদের মধ্যে ৩৪৮ জনই শারীরিক নির্যাতনের শিকার। 

যৌন নির্যাতনের শিকার হয়েছে ১১৭ জন। এদের মধ্যে শিশুও রয়েছে। ২০১৪ সালে শারীরিক নির্যাতনের শিকার হয়ে এসেছিল ২৯৭ জন। 

এর আগের বছর ২০১৩ সালে এ সংখ্যা ছিল ২১৯। গত জানুয়ারি মাসে ৩৪ জন নারী ওসিসিতে সেবা নিতে এসেছিলেন। এঁদের মধ্যে ২৭ জনই ছিলেন মারধরের শিকার।
 

ওসিসি চট্টগ্রামের সমন্বয়ক বলেন, স্বামী বা পরিবারের নির্যাতনের শিকার নারীরাই ওসিসিতে সেবা পান। প্রধানত যৌতুকের জন্যই এসব নারী নির্যাতিত হচ্ছেন। স্বামীর পরকীয়া কিংবা দ্বিতীয় বিয়েতে বাধা, স্বামীর মাদকাসক্তি, ভরণপোষণ দিতে না চাওয়াও নির্যাতনের অন্যতম কারণ। এ ছাড়া মাঝেমধ্যে নির্যাতিত গৃহকর্মীরাও আসেন।

গত ১ জানুয়ারি স্বামীর হাতে গুরুতরভাবে নির্যাতিত হয়ে ওসিসিতে ভর্তি হন রাঙ্গুনিয়া উপজেলার একটি উচ্চবিদ্যালয়ের শিক্ষিকা। স্বামীর দ্বিতীয় বিয়ের প্রতিবাদ করায় তাঁর ওপর নির্যাতন নেমে আসে।  

ওই শিক্ষিকা বলেন, ‘আমার মতো শিক্ষিত নারীর ওপর যদি এই অত্যাচার হয়, তাহলে নিরক্ষর বা কম শিক্ষিত নারীদের কী অবস্থা, বুঝে দেখুন।’
ধর্ষণের মতো যৌন নির্যাতনের শিকারদের মধ্যে পূর্ণবয়স্ক নারী ও শিশুর সংখ্যা প্রায় সমান বলে জানান মাফরুহা নিগার। আত্মীয় বা পরিচিত ব্যক্তিরাই এসব ঘটনার জন্য দায়ী বলে তিনি জানান। 

ধর্ষণের পাশাপাশি ঘটছে শারীরিক হামলার ঘটনাও। গত মাসে বাঁশখালীতে এক গৃহবধূকে তাঁর দেবর ধর্ষণ করেন। ধর্ষণ শেষে ওই গৃহবধূকে দা দিয়ে কুপিয়ে আহত করেন পাষণ্ড দেবর। আহতাবস্থায় ওই নারী ওসিসিতে চিকিৎসা নেন। ঘটনার চার দিন পর তিনি মামলা করেন।
 

নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে দায়ের হওয়া মামলাগুলো বিচারের জন্য চট্টগ্রামে তিনটি ট্রাইব্যুনাল রয়েছে। চট্টগ্রাম নগর ও ১৪ উপজেলার মামলাগুলোর বিচার হয় এই আদালতগুলোতে। দায়ের করা মামলার হিসাবে দেখা গেছে, গেল দুই বছরে আদালতগুলোতে মামলার সংখ্যা বেড়েছে। ২০১৫ সালে তিন আদালতে মোট ৩ হাজার ৫৬৩টি মামলা হয়েছে। এর আগের বছর ২০১৪ সালে মামলার সংখ্যা ছিল ৩ হাজার ৫৬৬টি। ২০১৩ সালে তিন আদালতে দায়ের হয়েছিল ২ হাজার ৯৮৬টি মামলা।
তবে আদালত তিনটিতে কোন ধারায় কত মামলা হয়েছে সে হিসাব বের করা যায়নি। অবশ্য চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশের হিসাবে দেখা গেছে, নগরের ১৬ থানায় ২০১৫ সালে নারী ও শিশু নির্যাতনের ৩৫৬টি ঘটনায় মামলা হয়েছে। এগুলোর মধ্যে যৌতুকের জন্য নির্যাতনের মামলা সবচেয়ে বেশি ছিল।
 

নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২–এর রাষ্ট্রপক্ষ বলেন, যৌতুকের জন্য শারীরিক নির্যাতনের অভিযোগে সবচেয়ে বেশি মামলা হয়। এরপর শ্লীলতাহানি বা ধর্ষণচেষ্টার মামলার সংখ্যাও উল্লেখযোগ্য। অবশ্য কেউ কেউ আইনের অপব্যবহার করে মিথ্যা মামলাও করেন। আবার, এটাও ঠিক যে প্রকৃত নির্যাতিত অনেকেই আইনের আশ্রয় নিতে চান না।
ওসিসি কর্তৃপক্ষও এম এ নাসেরের এই বক্তব্যের সঙ্গে একমত পোষণ করেছেন। তাঁরা জানান, নির্যাতনের শিকার হয়ে আসা নারীদের সবাই মামলা করতে চান না। গত মাসে ওসিসিতে আসা ৩৪ জনের মধ্যে মাত্র চারজন মামলা করেছেন। মামলাগুলোর মধ্যে তিনটি ছিল নির্যাতন ও একটি ধর্ষণ মামলা।

 আইনগত সহায়তা প্রদানকারী সংস্থা বাংলাদেশ লিগ্যাল এইড সার্ভিসেস ট্রাস্টের (ব্লাস্ট) চট্টগ্রাম কার্যালয়ে গত বছর ৫০৫টি অভিযোগ এসেছে। এসব অভিযোগের ভিত্তিতে মামলা হয়েছে ১৯৪টি। এসব মামলার ৮০টিই নারী নির্যাতনের। ৭৪টি ঘটনার মীমাংসা করা হয়েছে সালিসের মাধ্যমে। এ ছাড়া গত বছর খোরপোষ চেয়ে মামলা করেছেন ৭৮ জন নারী।
 নারী নির্যাতন প্রতিরোধে সরকারি-বেসরকারি নানা উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। কিন্তু তাতে নির্যাতনের মাত্রা হ্রাস পেয়েছে, সেটি বলা যাচ্ছে না। একদিকে সামাজিক অসহিষ্ণুতা বেড়েছে, অন্যদিকে পারস্পরিক শ্রদ্ধাবোধ ও সামাজিক মূল্যবোধ কমছে। এসব কারণেই নারী নির্যাতনের হার বাড়ছে বলে বলেন, ব্লাস্ট চট্টগ্রামের সমন্বয়কারী রেজাউল করিম চৌধুরী ।

 

উইমেনআই২৪//এলআরবি//

Mujib Borsho

সর্বশেষ

শীর্ষ সংবাদ:
চট্টগ্রামে মিতু হত্যায় অস্ত্র সরবরাহকারী গ্রেপ্তার         ঠাকুরগাঁওয়ে সাম্প্রদায়িক সহিংসতার প্রতিবাদে গণঅনশন         কাবুলে বিদ্যুৎ সরবরাহ লাইনে বিস্ফোরণ, আইএসের দায় স্বীকার         ডিগ্রি পাস কোর্সের এমপিওভুক্তি নিয়ে জটিলতা         সড়ক দুর্ঘটনা রোধে গাড়ির গতিসীমা নিয়ন্ত্রণের দাবি-ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশনের         আগামীকাল স্বপ্নের পায়রা সেতু উদ্বোধন         বিয়ের আর তিন মাস? যেভাবে যত্ন নেবেন নিজের         হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটের ভুল ব্যাখ্যা করে ফাঁসানো হচ্ছে-আরিয়ান         অ্যালেক বাল্ডউইন বলেছিলেন যে মারাত্মক শ্যুটিংয়ের আগে বন্দুক নিরাপদ ছিল - আদালতের রেকর্ড         ‘কই অন্ন কই ‘ কাঁদে তোর সন্তানেরা ম্লান শুষ্ক মুখ-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর         কুমিল্লায় ইকবাল রিমান্ডে ও পীরগন্জে 'উসকানীর' অভিযোগে আটক ২         অতিরিক্ত আপেল খেলে হতে পারে বিপদ         রোহিঙ্গা ক্যাম্পের নিহতের ঘটনায় আটক ৮         বাংলাদেশে সাম্প্রদায়িক হামলার প্রতিবাদে টরেন্টোতে মানববন্ধন         বেদখলকৃত জমি ফিরে পেতে চান দেবহাটার খলিশাখালীর জমি মালিকরা         ভক্তদের স্বস্তি দিলেন বুমোস         পরিবর্তনের পরিকল্পনা করছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ         পাহাড় জঙ্গলে ঘেরা মেঘের মুলুক ধোত্রে         শাহবাগে রাস্তা অবরোধ করে গণঅনশন         মুহিবুল্লাহ হত্যা: ‘কিলিং স্কোয়াড’ সদস্য গ্রেফতার         মণ্ডপে হামলার প্রতিবাদে চট্টগ্রামে গণঅনশন