বুধবার, ২ আষাঢ় ১৪২৮
১৬ জুন ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
যুক্ত থাকুন

আর্কাইভ
সর্বশেষ

নায়িকা মুনমুন সেনের জীবনবৃত্তান্ত

মিলি সুলতানা: মুনমুন সেন তার মা মহানায়িকা সুচিত্রা সেনের অভিনয় প্রতিভার সামান্য ছিঁটেফোঁটাও আয়ত্ব করতে পারেননি। আমার কাছে সুচিত্রা সেন মোহিনী হাসি, সজল দৃষ্টি আর রহস্যময় ভঙ্গিমার এক চিরন্তন প্রতিমা। মুনমুন সেন নামেই কেবল সুচিত্রা সেনের মেয়ে ছিলেন, গুণে নয়। তিনি বিকিনি ও টপলেস পরে সাড়া জাগিয়েছেন ঠিক, কিন্তু মানুষের মনে দাগ কাটতে পারেননি। মুনমুন সেন যখন অভিনয় জীবনে প্রবেশ করেন অনেকেই তখন আশাবাদ ব্যক্ত করেছিলেন মুনমুন তার মায়ের কিছুটা হলেও পদাংক অনুসরণ করতে পারবেন। কিন্তু মুনমুন চিত্রজগতে পা দিয়েই স্ক্যান্ডালের রানী হয়ে যান। অনেকের সাথে তিনি স্ক্যান্ডালের জন্ম দেন। বাংলাদেশেও মুনমুন বিখ্যাত ছিলেন। চিত্রজগতের মাফিয়া সম্রাট আজিজ মোহাম্মদ ভাইয়ের রক্ষিতা ছিলেন। মর্নিংসান পত্রিকার সম্পাদকের মেয়ে নওরীনকে জোর করে বিয়ের পরও মুনমুনকে কলকাতা মুম্বাই থেকে নিয়মিত ডেকে নিতেন আজিজ মোহাম্মদ ভাই। তবে এই বাণিজ্যিক সম্পর্কে মুনমুনই লাভবান হয়েছেন। আজিজ মোহাম্মদ ভাই তাকে প্রচুর টাকা দিতেন। এমনকি এও শোনা গিয়েছে মুম্বাইয়ে মুনমুনকে একটি আলিশান ফ্ল্যাট উপহার দিয়েছেন আজিজ মোহাম্মদ ভাই।

১৯৭৬ সালে সুচিত্রা সেন জাঁকজমকপূর্ণভাবে মেয়ে মুনমুনের বিয়ে দেন ত্রিপুরা রাজ পরিবারের সন্তান ভারত দেব ভার্মার সাথে। ভারত দেব ভার্মার পিতা মহারাজা রামেন্দ্র কিশোর দেব ভার্মা। তিনি বিয়ে করেছিলেন কুচবিহারের বড় রাজকুমারী ইলা দেবীকে। রাজকুমারী ইলা দেবীর আরো বড় একটা পরিচয় আছে। তিনি জয়পুরের মহারানী গায়ত্রী দেবীর বড়বোন। ভাগ্নের বিয়েতে যোগ দিয়েছিলেন খালা গায়ত্রী দেবী। রিশতায় বেয়াইন হয়ে যান মহানায়িকা এবং রাজমাতা। দুই ধনাঢ্য ইমেজের কিংবদন্তিকে একসাথে ফ্রেমবন্দী করে মুনমুনের বিয়ের দিনটিকে অবিস্মরণীয় করে তোলে সাংবাদিকরা। মুনমুন সেন ভারত দেব ভার্মার দুই কন্যাসন্তান, রাইমা সেন ও রিয়া সেন। মুনমুনের মেয়েরা তাদের পিতার নামের পদবি ব্যবহার করেননি। তারা তাদের দিম্মা সুচিত্রার সারনেইম ব্যবহার করে আসছে। এতে পিতা ভারত দেব ভার্মা কখনো আপত্তি তোলেননি। ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির লোকজন অবাক হয়েছে কিভাবে স্ক্যান্ডাল হিরোইন মুনমুনের সাথে বিবাহিত জীবন অতিবাহিত করলেন দেব ভার্মা!! বয়স যখন বাড়তে শুরু করল, যখন গ্ল্যামার হারিয়ে গেলো তখন মুনমুনের মধ্যে স্থিতি এলো। এবার তিনি সত্যিকারের কন্যা জায়া জননী হয়ে উঠলেন। একসময় মুনমুন রাজনীতির সাথে যুক্ত হয়ে যান। ২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে সিপিআই (এম)-এর নয়বারের এমপি বাসুদেব আচারিয়াকে পরাজিত করে জয়ী হয়েছিলেন।

শীর্ষ সংবাদ:
রাজধানীতে স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা         সেতু আছে; রাস্তা নেই, সংযোগ সড়ক!         আমার বিশ্বাস সঠিক বিচার পাব: পরীমণি         মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ে নারীদের চাকরি         ‘যুগের সঙ্গে তাল মিলিয়ে এসএসএফকে দক্ষ করা হচ্ছে’         ‘দুর্যোগেও চাল উৎপাদনে বাংলাদেশ এখন তৃতীয় স্থানে’         দেশে এক ডোজের করোনা টিকার অনুমোদন         মাদক মামলায় ৭ দিনের রিমান্ডে নাসির-অমি         অনিয়ম মোকাবিলায় হজ ও ওমরাহ পরিচালনা বিল পাশ         ডিবি কার্যালয়ে পরীমণি         জিততে পারল না আর্জেন্টিনা         আজ বর্ষার প্রথম দিন         চীনা কুকুর ছিনিয়ে নিলো বিজয়ের মুকুট         পরীমণির মামলা তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ         পরীমণিকে ডিবি কার্যালয়ে ডাকা হয়েছে         আপনারাই আমার সাহস: পরীমণি         আফগানিস্তানের নারী পুলিশ সদস্যরা যৌন নির্যাতনের শিকার হচ্ছেন         গার্ড অব অনারে নারী ইউএনও'র আপত্তির বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ দাবি         জাতিসংঘ মিশনে ‘বঙ্গবন্ধু লাউঞ্জ’         ফেনীতে একসঙ্গে ৪ কন্যাসন্তানের জন্ম         ‘নারীর অধিকার দেয়ার ব্যাপারে সৌদি পুরুষ ভীষণ ভীত’