শনিবার, ২৫ বৈশাখ ১৪২৮
০৮ মে ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
যুক্ত থাকুন

আর্কাইভ
সর্বশেষ

শিকলবন্দি জীবন কাটছে বৃদ্ধ জহুরুলের

হাসানুজ্জামান হাসান: মানসিক ভারসাম্যহীন অবস্থায় এক বছর ধরে নিজ গৃহে শিকলবন্দি জীবন কাটাচ্ছেন জহরুল ইসলাম নামের এক সত্তরোর্ধব বৃদ্ধ। প্রতি দিনেই প্রহর গুনছে কবে অবসান ঘটবে তার শিকল বন্দি জীবন।

লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলার ৯ নম্বর ওয়ার্ডের সিংঙ্গীমারী গ্রামের বাসীন্দা বৃদ্ধ জহরুল ইসলাম। গত দুই বছর পূর্বে আকস্মিক মস্তিস্কের বিকৃতি ঘটে। এ অবস্থায় কয়েকবার নিখোঁজ হয়। এর পর থেকে প্রতি দিন বাড়ির উঠানে পায়ে শিকল দিয়ে বেঁধে রাখা হয় ওই বৃদ্ধকে।

সরেজমিন গিয়ে দেখা গেছে, উপজেলার ৯ নম্বর ওয়ার্ডের সিংঙ্গীমারী গ্রামে বৃদ্ধ জহরুল ইসলাম এক বছর ধরে বাড়ির উঠানে গাছের সাথে শিকল দিয়ে বেঁধে রাখা হয়েছে। এ সময় বন্দি অবস্থায় ওই বৃদ্ধ বিড়বিড় করে কথা বলছেন। নিজের নামটি ছাড়া আর কিছুই বলতে পারেন না। এদিকে গত ৪ বছর পুর্বে স্ত্রী শরীফা বেগম প্যারালাইসে হয়ে একটি হাত ও পা বিকল হয়ে যায়। এ অবস্থায় পরিবারটি মানবেতর জীবন কাটাচ্ছে।

জানা গেছে, উপজেলার ৯ নম্বর ওয়ার্ডের সিংঙ্গীমারী  গ্রামের বৃদ্ধ জহরুল ইসলাম অতি কষ্টে দিনমজুরী করে ২ ছেলে ৩ মেয়ে ও স্ত্রী সহ ৭ সদস্যের পরিবার কে নিয়ে সংসার চালাত।পরবর্তীতে ২ ছেলে ও ৩ মেয়ে সকলেই বিবাহের পর অন্যত্র আলাদা সংসার পেতে বসবাস করছে তারা।

এ অবস্থায় ৪ বছর পুর্বে জহুরুলের বৃদ্ধা স্ত্রী শরীফা বেগম (৬০) হঠাৎ প্যারালাইসে আক্রান্ত হয়ে ১ হাত ১ পা অচল হয়ে যায়। অভাব আর অনাটনের সংসারে অর্থাভাবে স্ত্রীর চিকিৎসা করতে ব্যর্থ হয়। অর্থ কষ্ট আর দুচিন্তায় জহুরুল ইসলাম নিজেরও মস্তিস্ক বিকৃতি ঘটে। এর পর শুরু পরিবারে সীমাহীন দুর্ভোগ। নিরুপায় হয়ে পড়েন বৃদ্ধ স্বামী ও অসুস্থ স্ত্রী। বড় ছেলে সফিয়ার রহমান বিয়ে করে অন্য এলাকায় স্ত্রীকে নিয়ে বসবাস করেন। ছোট ছেলে শহিদুল ইসলাম দিনমজুর রাজমিস্ত্রীর কাজ করে অসুস্থ বাবা মা ও স্ত্রী সন্তানকে নিয়ে অতিকষ্টে সংসার চালান।

দিন মজুর ছোট ছেলে শহিদুল ইসলাম বলেন, ‘বাবা মা দুইজনেই অসুস্থ। তারা দিনমজুরি করে ঠিকমত দুইবেলা খাবার জুটে না। অসুস্থ্য বাবা ও মাকে খাওয়া পরানোর দায়িত্ব নিয়ে বিপাকে পড়ছি। বাবা মায়ের চিকিৎসার জন্য অর্থ পাবে কোথায়? অপরদিকে চিকিৎসা করতে না পারায় বাবা পাগল প্রায়। এ অবস্থায় বাবা কয়েকবার নিখোঁজ হয়। তাই দিনের বেলা বাবাকে গাছের সাথে শিকল বেঁধে রাখা হয়।’

বৃদ্ধ জহরুল ইসলামের স্ত্রী শরীফা বেগম বলেন, ‘অভাবের সংসার একটা ছেলের কাজের উপর ৫ জনের খাওয়া। আমার প্যারালাইস হওয়া পর স্বামীর মাথার সমস্যা। টাকা অভাবে দুইজনেই চিকিৎসা করতে পারি নাই। অসুস্থ অবস্থায় ঘরে দুইজনেই পড়ে আছি।’

প্রতিবেশী আবেদ আলী জানান, বৃদ্ধ জহরুল ইসলাম মানসিক রোগী কোথাও গেলে আর বাড়ি ফিরতে পারে না। তাই আমরা তার পায়ে শিকল দিয়ে গাছে বেঁধে রেখেছি।

সিংঙ্গীমারী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মনোয়ার হোসেন দুলু জানান, তিনি দীর্ঘ দিন থেকে মানসিক সমসস্যায় ভুগছেন। শিকলে বেঁধে রাখার বিষয় আমার জানা নেই। খোঁজ নিয়ে ওই পরিবারকে সাহায্য করা হবে।

হাতীবান্ধা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সামিউল আমিন বলেন, ‘শিকল দিয়ে বেঁধে রাখার বিষয়টি আমার জানা নেই। তবে খোঁজ নিয়ে ওই পরিবারকে সাহায্য করা হবে।’

শীর্ষ সংবাদ:
খালেদার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত আজ         হাসপাতালে ভর্তি তোফায়েল আহমেদ         ইতালিতে করোনায় চার বাংলাদেশির মৃত্যু         জনকণ্ঠের চাকরিচ্যুতদের পুনর্বহালের দাবি বিএফইউজ ‘র         নির্মল বন্ধুত্ব চাই!         শনিবার থেকে ফেরি চলাচল বন্ধ         শনি-রোববার পৃথিবীতে আছড়ে পড়তে পারে চীনা রকেট         শেখ হাসিনার চিঠি পেয়ে আপ্লুত মমতা         নতুন যুক্ত হলো বাংলাদেশসহ ৭ দেশ         গুগলের সেরার তালিকায় দিগন্তিকা         ‘কভিড ভ্যারিয়েন্ট এরাই কী নানা দেশে ছড়িয়ে দেয়নি!’         হাসপাতালে ভর্তি সন্ধ্যা রায়         শিল্পার পরিবারে করোনার থাবা         কঙ্গনার বিরুদ্ধে তৃণমূলের মামলা         দীর্ঘ বিরতির পর আবারও অপূর্ব-তিশা         যে কারণে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের টিকা নেবেন কোহলিরা         ‘গণতন্ত্রের অগ্নিবীণার দেশে ফেরা’         ‘খালেদার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত দেবে মেডিকেল বোর্ড’