সোমবার, ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮
১৭ মে ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
যুক্ত থাকুন

আর্কাইভ
সর্বশেষ

‘ভারতীয় ধরন বাংলাদেশে ঢুকলেই পরিস্থিতি ভয়াবহ’

উইমেনআই২৪ ডেস্ক: মহামারি করোনাভাইরাসের ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট বা ধরন বাংলাদেশে প্রবেশ করলে পরিস্থিতি ভয়াবহ হবে বলে আশঙ্কা করছেন বিশ্লেষকরা।

ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট চারদিকে ৩০০ গুণ সংক্রমণ ছড়ানোর ক্ষমতা রাখে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের মুখপাত্র ও লাইন ডিরেক্টর (অসংক্রামক ব্যাধি নিয়ন্ত্রণ) অধ্যাপক ডা. রোবেদ আমিন। এজন্য দেশের জনগণকে সার্বক্ষণিক মাস্ক পরিধানসহ প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান জানান তিনি।

রবিবার দুপুরে কোভিড-১৯ পরিস্থিতি নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদফতরের ভার্চুয়াল স্বাস্থ্য বুলেটিন প্রচারকালে তিনি এ কথা বলেন।

ডা. রোবেদ আমিন বলেন, ‘ভারতে অসম্ভব রকমের করোনার সংক্রমণ ঘটছে। প্রতিবেশী দেশটিতে যে দুটি ভ্যারিয়েন্ট পাওয়া গেছে- ডাবল বা ট্রিপল মিউটেশন ভাইরাস, তা সারাবিশ্বে বিস্ময় হিসেবে দেখা দিয়েছে। এই ডাবল কিংবা ট্রিপল মিউটেশন ভাইরাস যেন কোনোভাবেই দেশে আসতে না পারে সেজন্য সবাইকে সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে।’

অধ্যাপক ডা. রোবেদ আমিন বলেন, ‘আগামী ২৮ এপ্রিল সরকার ঘোষিত ‘কঠোর লকডাউন’ শেষ হবে। আজ থেকে সীমিত পরিসরে দোকানপাট ও শপিংমল খুলে দেয়া হয়েছে। বর্তমানে জনগণের সহযোগিতা একান্তভাবে কাম্য। দীর্ঘস্থায়ী লকডাউন পরিপূর্ণ সমাধান নয় এবং এর ফলে বাংলাদেশের অর্থনীতি ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে।’

এ বিশেষজ্ঞ বলেন, ‘জনগণকে অবশ্যই স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। মুখে সার্বক্ষণিক মাস্ক পরিধান করতে হবে এবং নির্দিষ্ট সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। প্রয়োজনে কঠোর হয়ে জনগণকে স্বাস্থ্যবিধি মানতে বাধ্য করতে হবে।’

সম্প্রতি ভারতের জিনোম বিজ্ঞানীরা করোনাভাইরাসের যে ‘ডাবল মিউট্যান্ট ভ্যারিয়েন্ট’ চিহ্নিত করেছেন, সেটি নিয়ে উদ্বেগ আছে। দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, এই ডাবল মিউটেশনের কারণে ভাইরাসটি মানবদেহের রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থা ফাঁকি দিতে পারে। টিকা তখন কাজ করে না। আর ‘ডাবল মিউট্যান্ট’ আতঙ্ক কাটতে না কাটতেই সম্প্রতি শোনা যাচ্ছে ‘ট্রিপল মিউট্যান্ট ভ্যারিয়্যান্ট’-এর কথা। ইতোমধ্যে পশ্চিমবঙ্গসহ দেশটির বেশ কয়েকটি রাজ্যে এ ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত হয়েছে।

নতুন এই স্ট্রেইনে আক্রান্তদের শারীরিক অবস্থারও দ্রুত অবনতি ঘটছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বাস্থ্য অর্থনীতি ইনস্টিটিউটের শিক্ষক ড. শাফিউন নাহিন শিমুল জানান, বাংলাদেশের বিশাল সীমান্ত ভারতের সাথে। তাই আনুষ্ঠানিক যোগাযোগ যতই বন্ধ থাকুক - তাতে সেখানকার ভাইরাস আসবে না এই নিশ্চয়তা নেই।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সময়মতো লাগাম পরানো না গেলে এবার সংক্রমণের সুনামি ঘটবে।

 

Mujib Borsho

সর্বশেষ

শীর্ষ সংবাদ:
পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত বর্ডার বন্ধ         শিক্ষার্থীদের ভ্যাকসিন নিশ্চিতের পর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলবে         ২৩ মে বঙ্গবন্ধুর ‘জুলিও কুরি’ পদকপ্রাপ্তির ৪৭তম বার্ষিকী         খুন হওয়ার মাসখানেক আগেও মিতুকে হত্যার পরিকল্পনা করা হয় !         করোনায় আরও ৩২ জনের প্রাণহানি, শনাক্ত ৬৯৮         রিমান্ড শেষে জবানবন্দি দিলেন বাবুল আক্তার         বিধিনিষেধ বাড়বে কি না নির্ভর করছে ভারতের পরিস্থিতির ওপর         মিস ইউনিভার্স হলেন মেক্সিকান সুন্দরী         ফিলিস্তিনিদের বাঁচাতে দ্রুত পদক্ষেপ নেয়ার আহ্বান বাংলাদেশের         বিএনপি তাদের নেত্রীর জন্য একদিন আন্দোলনও করতে পারেনি: কাদের         মেয়েদের সবচেয়ে বেশি খুন-ধর্ষণ কারা করে?         চীনা টিকার প্রথম ডোজ শুরু ২৫ মে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী         সেই খোরশেদের বিরুদ্ধে সায়েদা শিউলির আইসিটি আইনে মামলা         আমাকেও গ্রেফতার করুন: মমতা         উচ্চ রক্তচাপের ঝুঁকি কমাতে এবিএম আবদুল্লাহর ১০ পরামর্শ         গাজায় সবচেয়ে রক্তক্ষয়ী দিনে ৪২ জন নিহত         ঢাকামুখী যাত্রীর চাপ, গুনতে হচ্ছে বাড়তি ভাড়া         শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন গণতন্ত্রের ইতিহাসে মাইলফলক         শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস আজ         কানাডা অন্টারিও আওয়ামী লীগের ভার্চুয়াল আলোচনা         কাউকেই কোভিড-১৯ টিকা উৎপাদনের অনুমতি দেয়া হয়নি: ওষুধ প্রশাসনের বিবৃতি