মঙ্গলবার, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮
১৮ মে ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
যুক্ত থাকুন

আর্কাইভ
সর্বশেষ

বেগম খালেদা এভারকেয়ার হাসপাতালে

উইমেনআই২৪ প্রতিবেদক: করোনায় আক্রান্ত বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে এভারকেয়ারে হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৯টার সিটিস্ক্যান করানোর জন্য তাকে রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে নেওয়া হয়।

গত রবিবার (১০ এপ্রিল) করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর থেকেই খালেদা জিয়া পর্যবেক্ষণে ছিলেন। দলের নেতা কর্মীরাও ছিলেন চরম উৎকন্ঠায়। কোথায় হবে তার চিকিৎসা? এনিয়ে দলটির নেতারা বলছিলেন, তারই পুত্রবধূ জোবাইদা রহমানের তত্ত্বাবধানে বাসায়ই হবে চিকিৎসা। 

এর আগে, বুধবার খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা পর্যবেক্ষণ করতে তার বাসভবন ফিরোজায় যায় মেডিকেল টিম। সেখান থেকে বেরিয়ে মেডিকেল টিমের প্রধান অধ্যাপক ডা. এফ এম সিদ্দিকী জানান, খালেদা জিয়ার শরীরিক অবস্থা ভালো। ব্লাড প্রেসার ঠিক আছে। অক্সিজেন সেচ্যুরেশন ঠিক আছে। তবে সকালে হালকা জ্বর ছিল। তাপামাত্রা ১০০ কাছাকাছি ছিল। তবে তিনি স্থিতিশীল আছেন।

খালেদা জিয়াকে সিটি স্ক্যান করানোর সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে সে সময় জানিয়েছিলেন ডা. এফ এম সিদ্দিকী।

ডা. এফ এম সিদ্দিকী বলেছিলেন, ‘জোবাইদা (খালেদা জিয়ার পুত্রবধূ ডা. জোবাইদা রহমান) আমার ছাত্রী। আমি তার সাথেও কথা বলেছি।’

প্রসঙ্গত, করোনা সংক্রমণ পরিস্থিতি ভয়াবহ আকার ধারণ করায় গত রবিবার (১০ এপ্রিল) বাড়তি সতর্কতা হিসেবে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার করোনা পরীক্ষার নমুনা নেওয়া হয়েছে বলে সংবাদ প্রচারিত হলেও তা অস্বীকার করেন তার ব্যক্তিগত চিকিৎসক ও ভাগ্নে ডা. মামুন। পাশাপাশি খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসক ও তার ভাগ্নে ডা. মামুন বলেছিলেন, ‘এমন ঘটনার কোনো সত্যতা নেই। আমিই তার রেগুলার চেকআপ করি। রেগুলার চেকাপের অংশ হিসেবে ব্লাড টেস্ট করতে হয়। এটার জন্য তার ব্লাড নিতেই টেকনেশিয়ান নিয়ে ফিরোজায় গিয়েছিলাম। এটা কোনো করোনা পরীক্ষার অংশ না। খালেদা জিয়ার করোনা পরীক্ষার খবর নিতান্তই বিভ্রান্তিমূলক।’ বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রেস উইং সদস্য শায়রুল কবির খান বলেছিলেন, ‘এটি চেয়ারপারসনের নিয়মিত স্বাস্থ্য পরীক্ষা। করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনা নেওয়া হয়নি।’

পরে গত রবিবার বিকালে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার করোনাভাইরাসে (কভিড-১৯) আক্রান্ত হওয়ার খবরটি গুলশানে দলীয় চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে আয়োজিত জরুরি সংবাদ সম্মেলনে দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম নিশ্চিত করে জানিয়েছিলেন, খালেদা জিয়া করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন, তবে তার শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে।
এর আগে দুপুরে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য কর্মকর্তা মাইদুল ইসলাম প্রধান গণমাধ্যমকে খালেদা জিয়ার করোনায় আাক্রান্ত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছিলেন।

উল্লেখ্য, খালেদা জিয়া সরকারের নির্বাহী আদেশে জামিনে রয়েছেন। ২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি দুর্নীতির মামলায় তাকে কারাগারে যেতে হয়। দুই বছরের বেশি সময় কারাগারে থাকার পর গত বছর করোনা মহামারির কারণে পরিবারের আবেদনে তাকে ছয় মাসের জামিনে মুক্তি দেয় সরকার, যা তিন দফায় বাড়ানো হয়েছে। বর্তমানে তিনি বাসায় থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন। তার সঙ্গে পরিবারের সদস্য ও ব্যক্তিগত চিকিৎসক বাদে অন্য কেউ দেখা করতে পারেন না।’

Mujib Borsho

সর্বশেষ

শীর্ষ সংবাদ:
সাংবাদিক হেনস্থা করায় দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ হয়েছে         স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের রিপোর্ট করায় আমার সাথে অন্যায় হচ্ছে : রোজিনা         রিমান্ড নাকচ, সাংবাদিক রোজিনাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ         স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ব্রিফিং বয়কটের ঘোষণা সাংবাদিকদের         রোজিনা ইসলামকে ৫ দিনের রিমান্ডে চায় পুলিশ         সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে নেওয়া হলো আদালতে         একজন সাংবাদিকের প্রথম কাজ সত্য খুঁজে বের করা         রোজিনাকে সচিবালয়ে আটকে রেখে মারধর         প্রথম আলোর সাংবাদিক রোজিনা ইসলামের বিরুদ্ধে মামলা         রোজিনা ছিঁচকে চোর না, সে এদেশের সবচেয়ে নন্দিত সাংবাদিক         আমার বিরুদ্ধেও মামলা দেন         সাংবাদিক রোজিনা ইসলামের সুচিকিৎসা দিয়ে দায়িত্ব পালনে ফিরে যেতে দেওয়া হোক         পাঁচ ঘণ্টা আটকে রেখে থানায় নেওয়া হলো প্রথম আলোর রোজিনা ইসলামকে         প্রথম আলোর রিপোর্টারকে সচিবালয়ে স্বাস্থ্য সেবা বিভাগে আটকে হেনস্থা করা হয়েছে         জীবনযুদ্ধে জয়ী আকলিমা চাকরি পেলেন পৌরসভায়         মাথাপিছু আয় এখন ২২২৭ ডলার         সংবাদ মাধ্যমের অফিস লক্ষ্য করে ইসরাইলি হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়েছে জাতীয় প্রেস ক্লাব         ভারতফেরত তরুণীকে কো'য়ারেন্টিনে ‘ধ'র্ষণ’, এএসআই গ্রে'প্তার         সেদিন অনেক ঝড় মাথায় নিয়েই দেশে এসেছিলাম: শেখ হাসিনা         ব্যাংক কর্মকর্তারা দুর্নীতি করলে জরিমানা-মামলা         পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত বর্ডার বন্ধ