শুক্রবার, ৩ বৈশাখ ১৪২৮
১৬ এপ্রিল ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
যুক্ত থাকুন

আর্কাইভ
সর্বশেষ

‘অদক্ষ শ্রমিক সৌদি যেতে পারবেন না’

উইমেনআই২৪ ডেস্ক: অদক্ষ শ্রমিকদের জন্য বন্ধ হচ্ছে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সৌদি আরবের শ্রমবাজার। কাজের দক্ষতার পরীক্ষা দিয়ে উত্তীর্ণ হলেই কেবল দেশটিতে কাজ করতে যেতে পারবেন কর্মীরা। এখন যারা সেখানে আছেন তাদেরও মুখোমুখি হতে হবে এই পরীক্ষায়। এ বিষয়ে নতুন আইন করেছে সৌদি সরকার। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, কাজের দক্ষতা নেই এমন শ্রমিকদের ছাঁটাই করতেই এই উদ্যোগ নিয়েছে দেশটির সরকার।

চলতি বছরের জুলাই থেকে কার্যকর হতে যাওয়া এই নতুন আইনে দেশটিতে ‘প্রফেশনাল ভিসা’য় কাজ করা অভিবাসীদের কর্ম-দক্ষতার পরীক্ষায় অংশ নিতে হবে। কর্মসূচির নাম দেওয়া হয়েছে, ‘পেশাদার যাচাইকরণ’। সব পেশাজীবীর ব্যবহারিক ও তাত্ত্বিক পরীক্ষায় অংশ নেওয়া বাধ্যতামূলক।

যারা সৌদি আরবে যেতে চান তাদেরও এ পরীক্ষা দিতে হবে। আর এ পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলেই কেবল সৌদিতে কাজ করা যাবে। নতুবা তাদের মধ্যপ্রাচ্যের এই দেশটি ছেড়ে আসতে হবে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের চেয়ারম্যান এহসানুল হক মনে করেন সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে কর্মরত বাংলাদেশি শ্রমিকরা অদক্ষ নয়।

অদক্ষতার অজুহাতে শ্রমিক ছাড়াইয়ে সৌদি সরকারের উদ্যোগ এই প্রথম নয় জানিয়ে গণমাধ্যমকে তিনি বলেন, ‘সৌদি আরবের বাংলাদেশের থেকে দীর্ঘসময় ধরেই শ্রমিক নিচ্ছে এবং তারা সক্ষতার ভিত্তিতেই নিচ্ছে। বাংলাদেশের সরকারি যে প্রতিনিধি আছেন তাদের সঙ্গে কথা বলে সমস্যার সমাধান করতে হবে। সৌদি সরকারের এমন উদ্যোগ এ প্রথম নয়। এর আগেও তারা এ ধরণের অভিযোগে শ্রমিক ছাঁটাই করেছে।’

এহসানুল হক বলেন, ‘বিষয়টি নিয়ে জোরালো কূটনৈতিক তৎপরতা চালানো উচিত। বাংলাদেশের শ্রমিকদের যথেষ্ট দক্ষতা রয়েছে। আমাদের শ্রম মন্ত্রণালয় এবং পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সমন্বয়ে একটা জোরালো কূটনৈতিক তৎপরতা চালানো দরকার।’

চিকিৎসক, নার্স, শিক্ষক, প্রকৌশলী, হিসাবরক্ষকসহ বিভিন্ন দাপ্তরিক পেশায় নিয়োজিতদের পেশাগত দক্ষতার পরীক্ষা গ্রহণ করা হবে পাঁচটি ভাষায়। যেকোনো একটিতে বাছাই পরীক্ষা দিতে হবে। আরবি, ইংরেজি, হিন্দি, উর্দু ও ফিলিপিনো ভাষায় পরীক্ষা হলেও বাংলা ভাষাকে সে তালিকায় রাখেনি সৌদি সরকার।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের চেয়ারম্যান এহসানুল হক বলেন, ‘ভাষার বিষয়টা নিয়ে আলোচনা দরকার। অন্য ভাষাগুলো থাকার যৌক্তিকতা কী? বাংলা ভাষা বাদ দেওয়া হলো কেনো? এটা তো আমাদের আত্মমর্যাদার বিষয়।’

এদিকে আইনটি প্রণয়নের পর পরই সৌদির পাকিস্তান, ফিলিপাইন ও শ্রীলঙ্কার দূতাবাসগুলো তাদের দেশের নাগরিকদের পেশাগত দক্ষতার মান উন্নীত করা এবং প্রফেশনাল টেস্টে সফল হওয়ার জন্য কর্মপরিকল্পনা প্রণয়ন করেছে।

সৌদি প্রেস এজেন্সি ও আরব নিউজ জানিয়েছে, সৌদি আরব সরকারের ’ভিশন ২০৩০’ অনুযায়ী দেশটির শ্রমবাজারে ৭০ শতাংশ সৌদি আরবের নাগরিককে যুক্ত করার পরিকল্পনা গৃহীত হয়েছে। সে কারণে অদক্ষ শ্রমিক ছাঁটাই করে নিজ দেশে পাঠিয়ে দেওয়া হবে।

Mujib Borsho

সর্বশেষ সংবাদ

শীর্ষ সংবাদ:
ঝটপট মজাদার ইফতার রেসিপি         দ. কোরিয়ায় বাংলাদেশিদের ভিসা নিষেধাজ্ঞা         ‘এখানেও কুৎসিত মনের কিসিঞ্জারদের হস্তক্ষেপ’         রাজশাহীতে তরুণীর লাশ উদ্ধার         যুক্তরাষ্ট্রে গোলাগুলিতে ৮ জনের প্রাণহানি         লকডাউনে দায়িত্বে থাকা ৩ ট্রাফিক পুলিশকে মারধর         ‘খালেদা জিয়ার সিটিস্ক্যান রিপোর্ট ভালো’         ‘দেশে এক সপ্তাহে ৩০ শতাংশ মৃত্যু বেড়েছে’         শুক্রবার গ্যাস থাকবে না যেসব এলাকায়         রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অগ্নিকাণ্ড: ১০ লাখ ডলার দিচ্ছে জাপান         প্রবাসীদের জন্য শনিবার থেকে বিশেষ ফ্লাইট         সিটিস্ক্যান শেষে বাসায় ফিরেছেন খালেদা         বেগম খালেদা এভারকেয়ার হাসপাতালে         কবরী লাইফ সাপোর্টে         হেফাজতের ৩ নেতা পাঁচ দিনের রিমান্ডে         পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বক্তব্য নিয়ে ভারতের গণমাধ্যমে সমালোচনা         গুচ্ছভুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে আবেদনের সময়সীমা বাড়ছে         ইফতারের আগে রোজাদারের করণীয়