শনিবার, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৮
০৪ ডিসেম্বর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
যুক্ত থাকুন

আর্কাইভ
সর্বশেষ

করোনায় প্রবাসফেরত নারী কর্মীদের উপার্জনের সুযোগ তৈরিতে ‘ইউএন উইমেন’

উইমেনআই২৪ ডেস্ক: ফিরে আসা নারী অভিবাসী শ্রমিকরা মুখোশ তৈরি করছে এবং আয়ের বিকল্প ব্যবস্থা হিসাবে এক নারী ক্যাফে পরিচালনা করছেন। গত বছর বিশ্বব্যাপী করোনা মহামারী ছড়িয়ে পড়লে বাংলাদেশে ওই দুই নারীর আয়ের নিশ্চিত কোনো উৎস না থাকলেও একরকম বাধ্য হয়েই তারা দেশে ফিরে আসেন।

ফিরে আসে প্রবাসী শ্রমিকদের সহায়তা ‘ইউএন উইমেন’ গত বছর জাপান সরকারের সমর্থিত ‘কোভিড -১৯ প্রতিরোধ কেন্দ্রের নারী এবং বালিকা’ নামে একটি প্রকল্প চালু করে। প্রকল্প বাস্তবায়নে সহযোগী অংশীদার বাংলাদেশ নারী শ্রমিক কেন্দ্র (বিএনএসকে) এসব নারীকে বিকল্প উপার্জনের সুযোগ তৈরির জন্য প্রশিক্ষণ এবং প্রয়োজনীয় সরঞ্জামাদি প্রদান করে। ওই দুই নারী এই প্রকল্পের সুবিধাভোগী।

মঙ্গলবার এই উদ্যোগের আওতায় জাপানের রাষ্ট্রদূত নওকি ইটো বাংলাদেশ-কোরিয়া কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে (বিকেটিটিসি) ফিরে আসা প্রবাসী নারী কর্মীদের জন্য ‘নারীদের অর্থনৈতিক নেতৃত্বের উপর প্রশিক্ষণ’ শিরোনামে আরও একটি কোর্সের উদ্বোধন করেন।

নওকি ইটো বলেন, ‘ইউএন উইমেন, বিএনএসকে, জিওবি এবং জাপান সরকারের মধ্যে সমন্বয় ও সহযোগিতার স্তরটি আমাকে সবচেয়ে বেশি প্রভাবিত করেছিল। ক্ষমতায়ন ও সুরক্ষার দিকে দৃষ্টিনিবদ্ধ করে জাপান এমন একটি ‘মানব সুরক্ষা’ধারণা নিয়ে এসেছিল। এই উদ্যোগ এই ধারণার একটি উৎকৃষ্ট উদাহরণ যেখানে আমরা নারীর আয়ের উৎস তৈরির মাধ্যমে সক্ষমতা ও ক্ষমতায়ন বাড়িয়ে তাদের সুরক্ষা দেওয়ার জন্য কাজ করছি।’

তিনি বিকেটিটিসিতে ‘নারী ক্যাফে’ পরিদর্শন করেন। বর্তমান অবস্থা বোঝার জন্য তাদের সঙ্গে তিনি মতবিনিময় করেছেন। পরে রাষ্ট্রদূত এবং অতিথিরা বিএনএসকে অফিস চত্বরে নারী অভিবাসী শ্রমিকদের মুখোশ উৎপাদন কার্যক্রম পরিদর্শন করেন।

গত বছর মহামারী ছড়িয়ে পড়লে শুধু দেশে বসবাসকারী মানুষকেই নয়, প্রবাসী কর্মী বিশেষ করে নারীরা বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল। ২০২০ সালের এপ্রিল-ডিসেম্বরের মধ্যে মোট ৪০৮,৪০৮ জন অভিবাসী শ্রমিক বাংলাদেশে ফিরে আসে। এদের মধ্যে ১২ ভাগ নারী ছিলেন। করোনার কারণে অকাল ফিরে আসা এসব নারী অভিবাসী কর্মীদে চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হয়। বিদেশের কর্মসংস্থান থেকে ফিরে এসে অনেকে মনস্তাত্ত্বিক ট্রমা সমস্যা ভোগেছে। করোনার বাহক সন্দেহে তারা হয়রানির শিকার হয়েছে। বিশেষ করে যেসব দেশে করোনা অতি মহামারি হয়েছে সেসব দেশ থেকে ফিরে এসে আরো বেশি হয়রানির শিকার হতে হয়েছে।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ইউএন উইমেন বাংলাদেশ এর কান্ট্রি প্রতিনিধি সুশো শোকো ইশিকাওয়া বলেন, ‘আমরা নিশ্চিত করতে চাই যে করোনার কারণে ফিরে আসা নারীরা কিছু অর্থ উপার্জনের কার্যক্রম চালিয়ে যেতে সক্ষম হবেন যাতে তারা নিজেদেরকে টিকিয়ে রাখতে পারেন। আমরা বিএমইটি-কেও নারীদের প্রশিক্ষণ অব্যাহত রাখতে বলব যাতে তারা কাজ চালিয়ে যেতে পারেন এবং স্থিতিশীল জীবিকানির্বাহ করতে পারেন।’

এতে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত মহাপরিচালক, জনশক্তি, কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরো (বিএমইটি), প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান (এমওইউ ও ওই) অতিরিক্ত মহাপরিচালক মিসেস নাফরিজা শায়মা।

Mujib Borsho

সর্বশেষ

শীর্ষ সংবাদ:
নিরাপদ সড়কের দাবিতে আবারও সড়কে শিক্ষার্থীরা         চীনা বিজ্ঞানীদের করোনার ‘প্যানাসিয়া’ অ্যান্টিবডি আবিষ্কারের দাবি         ঢাকায় ‘বিশ্ব শান্তি সম্মেলন’ শুরু আজ         চাকায় ওড়না পেঁচিয়ে প্রাণ গেল স্কুলশিক্ষিকার         জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে নীলফামারীর এক বাড়ি ঘিরে রেখেছে র‍্যাব         ওমিক্রন মোকাবিলায় প্রস্তুত থাকুন: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা         বিশ্বে একদিনে করোনায় আরও ৭ হাজারের বেশি মৃত্যু         চারদিনে ৪ গুণ বেড়েছে দ.আফ্রিকার করোনা সংক্রমণ         টসে হেরে ফিল্ডিংয়ে বাংলাদেশ         অমিতাভ বচ্চনের বিরুদ্ধে স্ত্রী জয়ার অভিযোগ         সংবিধানে প্রতিবন্ধীসহ সবার সুযোগের সমতা রয়েছে: প্রধানমন্ত্রী         ওমিক্রন ঢেউ সামলাতে সব দেশকে প্রস্তুত থাকার আহ্বান         গণফোরামের একাংশের নতুন সভাপতি মন্টু, সম্পাদক সুব্রত         নাসিকে মেয়র আইভীই পেলেন নৌকার মনোনয়ন         চা বিক্রেতা থেকে ইউপি সদস্য মাজেদা         ওমিক্রন প্রতিরোধে কঠোর বিধিনিষেধ প্রয়োগ ও কার্যকর করার দাবি         কর্মসূচি দিয়ে সড়ক ছাড়লেন শিক্ষার্থীরা         ডেল্টা-বিটার তুলনায় তিনগুণ বেশি শক্তিশালী ওমিক্রন         খালেদা জিয়ার অবস্থা গুরুতর: ড. জাফরুল্লাহ         আমরা সনদধারী বেকার তৈরি করতে চাই না: শিক্ষামন্ত্রী