সোমবার, ১৭ ফাল্গুন ১৪২৭
০১ মার্চ ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
যুক্ত থাকুন

আর্কাইভ
সর্বশেষ

কাতারের ওপর থেকে অবরোধ তুলে নিল সৌদি

উইমেনআই২৪ ডেস্ক: প্রতিবেশী কাতারের সঙ্গে নিজের আকাশ, জল ও স্থলসীমান্ত খুলে দিয়েছে সৌদি আরব। দোহার সঙ্গে তিন বছরের কূটনৈতিক সংকট কাটিয়ে উঠতে একটি সফল চুক্তির পর এমন সিদ্ধান্ত এসেছে।

এর মধ্য দিয়ে দোহাকে বিচ্ছিন্ন করতে রিয়াদের নেতৃত্বাধীন জোটের অবরোধের অবসান ঘটবে।

মঙ্গলবার উপসাগরীয় সহযোগিতা পরিষদের (জিসিসি) বার্ষিক সম্মেলনে ‘পুরো চুক্তিটি’ সই করার কথা রয়েছে। সম্মেলনের মূল আলোচ্যসূচিই হচ্ছে এই চুক্তি বলে খবরে বলা হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্র ও কুয়েতি কর্মকর্তাদের বরাতে আরবনিউজ ও বার্তা সংস্থা এএফপির প্রতিবেদনে এমন তথ্য মিলেছে।

কাতারের আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আল-থানির উপস্থিতিতে উত্তরপশ্চিমাঞ্চলীয় সৌদি শহর আল-উলায় এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। গত তিন বছর ধরে এই সম্মেলনে অংশ নেননি থানি।

নিজেদের সন্ত্রাসবিরোধী জোট বলে দাবি করা চার দেশ সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত, মিসর ও বাহরাইন বছর তিনেক আগে কাতারের বিরুদ্ধে বাণিজ্য, ভ্রমণ ও কূটনৈতিক নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছিল।

সম্প্রতি কুয়েতের আমির শেখ নওয়াফ আল-সাবাহের নেতৃত্বে একটি মধ্যস্থতা চেষ্টা হয়েছে। যার ফল হিসেবেই এই চুক্তি সই হয়েছে।

সোমবার কুয়েতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ আহমাদ আল-সাবাহ এক বিবৃতিতে বলেন, শেখ নওয়াফের প্রস্তাবের ওপর ভিত্তি করে কাতারের সঙ্গে আকাশ, জল ও স্থলসীমান্ত খুলে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়ছে সৌদি আরব।

মঙ্গলবারের চুক্তিসই অনুষ্ঠান প্রত্যক্ষ করতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিশেষ উপদেষ্টা ও জামাতা জারেড কুশনার সৌদি সফরে যাবেন। তার সঙ্গে মধ্যপ্রাচ্য বিষয়ক মার্কিন দূত আভি বেরকাউইটস ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উপদেষ্টা ব্রিয়ান হুকও থাকবেন।

ট্রাম্প প্রশাসনের এক জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা বলেন, উপসাগরীয় সহযোগিতা পরিষদের দেশগুলোর মধ্যে যে বিরোধ ছিল, তার সমাধানে আমরা সফল হয়েছি।

নতুন চুক্তির অধীন চার দেশে কাতারের বিরুদ্ধে আরোপ করা অবরোধ উঠিয়ে নেবে। কাতারও এ সংক্রান্ত কোনো আইন অনুসরণ করবে না।

এতে দেশগুলোর মধ্যে পণ্য পরিবহন থেকে শুরু করে ভ্রমণের বাধা কেটে যাবে। মধ্যপ্রাচ্যে স্থিতিশীলতা ফিরে আসবে বলে প্রত্যাশরা করা হচ্ছে।

মধ্যপ্রাচ্য বিষয়ক গবেষক মাইকেল স্টিফেন বলেন, কাতার ও তার আঞ্চলিক প্রতিদ্বন্দ্বীদের মধ্যে ব্যাপক বিভাজনের সেতুবন্ধনে আরও অনেক কাজ বাকি আছে। এটি ইতিবাচক খবর, গুরুত্বপূর্ণ প্রথম পদক্ষেপ।

Mujib Borsho

সর্বশেষ সংবাদ

লিড