শনিবার, ১৫ ফাল্গুন ১৪২৭
২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
যুক্ত থাকুন

আর্কাইভ
সর্বশেষ

‘পার্বত্য অঞ্চল দেশের পর্যটন শিল্পের বিকাশে সম্ভাবনাময় ক্ষেত্র’

উইমেনআই২৪ ডেস্ক : ‘পার্বত্য অঞ্চল দেশের পর্যটন শিল্পের বিকাশে একটি অনন্য সম্ভাবনাময় ক্ষেত্র। বিশেষ করে এখানকার ভূ-প্রকৃতি পর্বতারোহণ, ট্র্যাকিং, হাইকিং, বাঞ্জি জাম্পিং, মাউন্টেন বাইকিং, র‌্যাফটিং, কায়াকিং, জিপ-লাইনিং, প্যারাগ্লাইডিংসহ বিভিন্ন এডভেনচারধর্মী আয়োজনের জন্য উপযুক্ত।’

বঙ্গবন্ধু ট্যুর-ডি সিএইচটি মাউন্টেন বাইক প্রতিযোগিতা উপলক্ষ্যে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ তার বাণীতে এ কথা বলেন।

বাণীতে আরো বলা হয়, ‘‘সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ ‍মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষ্যে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয় ‘বঙ্গবন্ধু ট্যুর-ডি সিএইচটি মাউন্টেন বাইক প্রতিযোগিতা-২০২০’ আয়োজন করেছে জেনে আমি অত্যন্ত আনন্দিত। বিশ্বনন্দিত ‘Tour-de-France’ প্রতিযোগিতার আদলে এ আয়োজন তরুণ প্রজন্মকে এডভেনচারধর্মী কার্যক্রমে উৎসাহিত করবে বলে আমি মনে করি।’

‘আমি আশা করি, এ আয়োজন পার্বত্য অঞ্চলের বৈচিত্র্যময় ভূ-প্রকৃতি ও নৈসর্গিক প্রাকৃতিক সৌন্দর্য দেশ-বিদেশের এডভেনচারপ্রিয় তরুণদের আকর্ষণের পাশাপাশি এ অঞ্চলে টেকসই পর্যটনের প্রচার ও প্রসারে নতুন মাত্রা সংযোজন করবে।’

‘দেশি-বিদেশি পর্যটকদের আকর্ষণের পাশাপাশি পাহাড় ও সমতলের অধিবাসীদের পারস্পরিক সম্প্রীতি ও সৌহার্দ্যের বন্ধন সুদৃঢ় করতে নিয়মিত মাউন্টেন বাইক প্রতিযোগিতার মতো আয়োজন ইতিবাচক ভূমিকা রাখবে। আমি প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী বাইকারদের আন্তরিক শুভেচ্ছা জানাচ্ছি। আমি আশা করি, এর মাধ্যমে তরুণ প্রজন্ম রোমাঞ্চকর কার্যক্রমে নিজেদের সম্পৃক্ত করতে উৎসাহী হবে এবং দেশের বৈচিত্র্যময় প্রাকৃতিক সৌন্দর্য ও সংস্কৃতি সম্পর্কে সম্যক ধারণা লাভে সক্ষম হবে।’

উল্লেখ্য, ‘বঙ্গবন্ধু ট্যুর-ডি সিএইচটি মাউন্টেন বাইক প্রতিযোগিতা’ সাজেক, রাঙ্গামাটি হতে শুরু হয়ে রাঙ্গামাটি সদর, বান্দরবান সদর হয়ে ৩০০ কিলোমিটার পথ অতিক্রম করে বান্দরবানের থানচিতে শেষ হবে। ১০০ জন মাউন্টেন বাইকার এ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করবে।

 

 

Mujib Borsho

সর্বশেষ সংবাদ

লিড