সোমবার, ১৭ ফাল্গুন ১৪২৭
০১ মার্চ ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
যুক্ত থাকুন

আর্কাইভ
সর্বশেষ

নারী ও পুরষের ক্ষমতায়ন নিয়ে যা বলছে জরিপ

নারী ও পুরষের ক্ষমতায়ন নিয়ে যা বলছে জরিপ

কম বয়সী তরুণ-তরুণীরা বিশ্বাস করে পুরষদের মতো নারীরাও সমভাবে নেতৃত্ব দিতে সক্ষম। ১৪ হাজার জনের মধ্যে পরিচালিত এ জরিপে লিঙ্গ সমতা সংগ্রাম করছে বলে পরিলক্ষিত হয়।

সম্প্রতি ‘কান্তার এবং নারী নেতৃত্ব জোট’ কানাডা, ফ্রান্স, জার্মানি, ইতালি, জাপান, যুক্তরাজ্য এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র নিয়ে গঠিত জি-৭ ভুক্ত দেশগুলোতে এ জরিপ পরিচালনা করে।

সম্প্রতি পরিচালিত এ জরিপে দেখা গেছে, জি-৭ দেশগুলোর ১৮-৩৪ বছর বয়সী ৭২ ভাগ তরুণ-তরুণী মনে করে পুরুষ ও নারী উভয়ই ক্ষমতায়নের ক্ষেত্রে উপযোগী। তুলনামূলকভাবে পুরষ-নারী নেতৃত্ব সমতার সমথনের ক্ষেত্রে এই বয়সীরা ৫৫-৬৫ বয়সীদের চেয়ে পিছিয়ে রয়েছে।

এদিকে ৫৫-৬৫ বয়সীদের মধ্যে ৭৬ ভাগ মনে করে পুরুষ ও নারী উভয়ই ক্ষমতায়নের ক্ষেত্রে উপযোগী।

প্রতিটি দেশের লিঙ্গ, বয়স ও শিক্ষার প্রোফাইলের উপর ভিত্তি করে এ জরিপ চালানো হয়েছিল। জরিপ থেকে বুঝা যায় যে তরুণ-তরুণীরা মনে করে না নেতৃত্বের ক্ষেত্রে পুরষ ও নারী সমানভাবে উপযুক্ত।

জরিপে ফ্রান্স, ইংল্যান্ড ও জামানি তরুণ-তরুণীদের মনোভাবে এ বৈষম্য আরো বেশি ধরা পড়ে। প্রতিবেদনে উঠে এসেছে যে ওই দেশগুলোর বয়স্ক নারী-পুরষদের চেয়ে তরুণ-তরুণীরা সম অধিকারের বিষয়টিতে কম বিশ্বাস করেন।

১৮-৩৪ বছর বয়সীদের মধ্যে পুরুষ এবং নারী নেতৃত্বের দৃষ্টিভঙ্গির মধ্যে ব্যবধানটি আরও বেশি ঝুঁকিপূর্ণ । তাদের মতে, কোনো দেশের কোনো দলই সরকার প্রধান হিসাবে বা কোনও বড় সংস্থা পরিচালিত কোনও নারীকে নিয়ে পুরোপুরি স্বস্তি প্রকাশ করেনি।

জরিপের উপসংহারে বলা হয়, জি-৭ দেশগুলো নারী নেতৃত্বের ক্ষেত্রে তেমন সুফল পায়নি। ঐতিহাসিকভাবেই সমস্যা সমাধানের মতো নয় এমন ধরনের অবস্থা দেখা যাচ্ছে। ২০২০ সালও ব্যতিক্রম নয়। সমাজের অগ্রগতি লক্ষ্য করা যাচ্ছে না। ব্লুমবারগ ডটকম

Mujib Borsho

সর্বশেষ সংবাদ

লিড