সোমবার, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৭
৩০ নভেম্বর ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
যুক্ত থাকুন

আর্কাইভ
সর্বশেষ

১০ মন্ত্র নারীকে যেকোনো কাজে সফলতা দিবে

১০ মন্ত্র নারীকে যেকোনো কাজে সফলতা দিবে

সফল নারী উদ্যোক্তারা লক্ষ্য অর্জনে ভিন্ন ভিন্ন পদক্ষেপ নিয়ে থাকেন। সফল হতে কী ধরনের কর্মপরিকল্পনা গ্রহণ করতে হয়, কোন পরিস্থিতিতে শিখতে হয় তা উপলব্ধিতে আসলেই লক্ষ্য পৌঁছানোর পথ মসৃন হয়। তখন এসব নারীদের কর্মের বাস্তব সফলতা দৃশ্যমান হয় এবং তা সম্মান অর্জনে সহায়ক হয়।

সাকসেস ডটমের প্রতিবেদন বলা হয়েছে, অনুসন্ধানের জন্য, উদ্যোক্তা কাউন্সিলের ১০ সদস্যকে সফল নারী উদ্যোক্তাদের সঙ্গে পর্যালোচনামূলক কথা বলতে বলা হয়েছিল যাতে করে তাদের সাফল্যের চাবিকাঠিগুলো বের করে আনা যায়। সফল এসব উদ্যোক্তা তাদের সাফল্যের পথ সুগম করার কথা বিভিন্ন আঙ্গিকে বর্ণনা করেছেন। এগুলোর মধ্যে ১০টি বিষয়কে প্রাধান্য দেয়া হয়েছে। সফল উদ্যোক্তাদের এ ধরনের বিষয়গুলো অনুকরণীয়।

১। অবমূল্যায়নকে শক্তি হিসেবে রূপান্তর করুন

সফল নারী উদ্যোক্তার অবমূল্যায়নের অগণিত গল্প রয়েছে। নারীরা যখন এটিকে শক্তিহিসেবে দেখে তখন তারা প্রতিবার সফল হয়। আপনার নিজের সক্ষমতার প্রতি আস্থা রাখুন। কারো নেতিবাচক কথায় বা আপনার সক্ষমতা নিয়ে কেউ অবমূল্যায়ন করলে দিশা হারাবেন না। নিজের মতো করে ভাবুন। দেখবেন আপনি কাজটি শুরু করে পদক্ষেপ নিয়ে এগিয়ে যেতে শুরু করেছেন।

২. কমপরিকল্পনা ঠিক না করে অগ্রগতির দিকে ছোটা

সঠিক অগ্রগতি এবং অভিজ্ঞতা সঞ্চয়ে ব্যাবসা বা কাজ সংশ্লিষ্ট নারীদের সঙ্গে চলাচল করলে কাজে সফলতার সঠিক উপায় খুঁজে পাওয়া যেতে পারে। নতুন কিছু চেষ্টা করার জন্য ‘পরীক্ষা-নিরীক্ষা’ চালিয়ে মস্তিষ্ককে মিথ্যে অগ্রগতির ফাঁদ থেকে দূরে সরিয়ে রাখতে সক্ষম হতে হবে। কয়েক সপ্তাহ ধরে পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর ধ্যানঘোরে এগিয়ে যাওয়ার কমপ্রণালীর ছক কষে দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে।

৩. কৃতিত্বের স্বীকৃতি

গবেষণায় দেখা গেছে যেসব কাজে বা চাকরিতে নারীরা মনোনিবেশ করে আত্মবিশ্বাসের অভাবে সেসব কাজে তাদের শতভাগ যোগ্যতা থাকে না। সফল নারী হতে গেলে কোন কাজে সফলতার স্বীকৃতি আসবে তা হাসিলের চেষ্টা করতে হবে।

৪. ফলাফল অজানা থাকলেও পদক্ষেপ নেয়া

সফল নারীরা অনেক ক্ষেত্রে শতভাগ আত্মবিশ্বাস না নিয়েই উদ্যোক্তা হিসেবে সাফল্য পেয়েছেন। চেষ্টা এবং ব্যর্থতা যাই হোক না কেন এ থেকে তারা কিছু শিখতে সক্ষম হয়েছে। জীবন বা ব্যবসায়ের ক্ষেত্রে বাস্তবে খুব কমই এমন সব অপ্রীতিকর অবস্থার সম্মুখীন হতে হয়। তারপরও তারা সফল। কারণ সফলতার পথ কাটায় মোড়ানো। সফল নারীরা জানেন ভয় এবং অনিশ্চয়তা থাকা সত্ত্বেও পদক্ষেপ নিয়ে কীভাবে এগিয়ে যেতে হয়।

৫. একে অপরকে অনুপ্রাণিত করা

প্রত্যেকের সাফল্যের জন্য পৃথকভাবে বিশ্বে পর্যাপ্ত জায়গা রয়েছে। শীর্ষে যাওয়ার জন্য নারীদের একে অপরের বিরুদ্ধে পিছু লেগে থাকার দরকার নেই। সফলরা একে অপরের সঙ্গে মতবিনিময় করে সেরা হতে উৎসাহিত করবে। তবেই সফলতা আসবে।

৬. পরামর্শের আদানপ্রদান

ব্যবসা বা কাজ যে বিষয়ের উপরেই হোক না কেন একে অপরের সঙ্গে মতবিনিময়ের ফলে স্বচ্ছ কোনো উপায় বেরিয়ে আসে। তাই সফল বা সবে উদ্যোক্তা হয়েছে এমন একে অপরের পরামর্শের অনুযায়ী কর্মপন্থা এগিয়ে নিলে অনেকাংশেই সুফল আসবে ধরা যায়।

৭. দেহের ভাষা পড়ে মন উপলব্ধির দক্ষতা

একজন নারীকে উদ্যোক্তা বা যেকোনো ক্ষেত্রে সফল হতে গেলে কল্পনানির্ভর বাস্তবপ্রাসঙ্গিক জ্ঞান থাকতে হবে। কেননা স্বভাবগতভাবে মেয়ের দেহের ভাষা রয়েছে। কোনো প্রয়োজনে কারো সহায়তা বা কারো কাছ থেকে কোনো অনুষঙ্গ পেতে গেলে ওই ব্যক্তির দেহের ভাষা পড়েই মন বুঝার উপলব্ধি দক্ষতা থাকলে সেটা অলৌকিক শক্তির মতো কাজে দিবে। শক্তির এ দিকটি দুর্দান্ত উচ্চতায় পৌঁছে দিতে সহায়তা করে।

৮. নির্দ্বিধায় পরিকল্পনা ছক ভাগাভাগি করা

উদ্যোক্তা হিসেবে বা যেকোন কাজে সফলতা আসবে এমন পরিকল্পনা ছক সংশ্লিষ্টদের মধ্যে ভাগাভাগি করে নিলে কাজে গতি আসে যা থেকে সফলতাও বেশি পাওয়া যায়। আর এসব সফলতা একটি জাতিকে এগিয়ে নিয়ে যায় অনেক দূর। কেননা নিজের কাছে সব পরিকল্পনা নিয়ে ঘুরলে নিজের মধ্যেই থেকে যায় তা কোনো কাজে আসেনা। হয়তো যেকারো মস্তিষ্কে পড়ে থাকা একটি পরিকল্পনা একটি ব্যবসাতো বটেই দেশের ভাগ্যও বদলে যেতে পারে।

৯. নেতৃত্বের সমাবেশ করা

উন্নত বিশ্বে এ ধরনের সভা হয়ে থাকে। সফল নারী উদ্যোক্তা বা ব্যবসায়িক সফল এমন ব্যক্তিদের নিয়ে নেতৃত্বের সমাবেশ করা যেতে পারে। যে সমাবেশে উদ্যোক্তা হতে উৎসুক এমন নারীদের নিয়ে আসা হবে। যাতে ওই এলাকার অন্য নারী উদ্যোক্তা হতে উৎসাহী হয়। মোদ্দা কথায় ক্ষুদ্র ব্যবসায় সফল এলাকাকেন্দ্রিক ৫ জন মিলেও এমন সভা করা যেতে পারে। এসব সমাবেশে মধ্য দিয়ে নতুরা অনুপ্রাণিত হবে এবং নতুন উদ্যোক্ত গড়ে উঠবে। একজন উদ্যোক্তাই অন্য আরেকজন উদ্যোক্তা তৈরি করবে।

১০. ভিন্ন মেজাজী

নারীদের একটি বৈশিষ্ট্য রয়েছে। তারা অল্প বয়সে থেকে সুন্দর ও মিষ্টি থাকতে পছন্দ করে। যে কারণে মানসিকভাবে বেশির ভাগ নারীই কোমল মেজাজের হয়ে থাকে। তবে উদ্যোক্তা বা কোনো কাজে সফল হতে গেলে সবকিছু সমন্বয় থাকতে হবে। তবেই সফলতা আসবে। কারণ সফল হতে গেলে ঝুঁকি নিতে হয়। নরম মন নিয়ে বসে থাকলে সেই ঝুঁকির চিন্তা করলে মনে ভয় ধরবে। তবে এই ভয়ে কিছু জয় হবে না। কঠোরতার ভয় মনে জয় আনে।

Mujib Borsho

সর্বশেষ সংবাদ

লিড

শীর্ষ সংবাদ:
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব রেল সেতুর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করলেন প্রধানমন্ত্রী         নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে’ ‘মুক্তির মিছিল’ : অংশগ্রহণের আহ্বান         জলের আঁচড়         ফ্রিল্যান্সাররা ‘ভার্চুয়াল আইডি কার্ড’ পাচ্ছেন বুধবার থেকে         ঘুমন্ত বাবা-মায়ের পাশ থেকে গায়েব সেই শিশুর লাশ উদ্ধার         বিশ্বে একদিনে করোনা সংক্রমণের নতুন রেকর্ড         পারমাণবিক দুর্যোগ মোকাবিলায় ‘গাইডলাইন’         সৌমিত্রের স্মৃতিমন্থন করে টুইট করলেন অমিতাভ বচ্চন         ‘বঙ্গবন্ধুর আদর্শের এক বিশ্বস্ত সহকর্মীকে হারালাম’: প্রধানমন্ত্রী         সাবেক ডেপুটি স্পিকার শওকত আলীর ইন্তেকাল         ফের সেলফ আইসোলেশনে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস         স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে চাকরির বিজ্ঞপ্তি         শীতে রূপচর্চায় সরিষা তেল         প্রথমবারের মতো বাইডেনের জয় স্বীকার করলেন ট্রাম্প         কিংবদন্তী সৌমিত্রের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক         না ফেরার দেশে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়         আলোচনায় মৌসুমী         ডিসেম্বরের মাঝামাঝিতে শেখ হাসিনা ও নরেন্দ্র মোদির বৈঠক         ছেলের ছবিতে সোফিয়া লরেনের প্রত্যাবর্তন