ঢাকা, বাংলাদেশ

সোমবার, আশ্বিন ১০ ১৪২৯, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২

English

অপরাধ

বাহুবলে সুয়েব হত্যা মামলার আরেক আসামি গ্রেফতার

নুর উদ্দিন সুমন, হবিগঞ্জ থেকে 

প্রকাশিত: ২০:৪৩, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২২

বাহুবলে সুয়েব হত্যা মামলার আরেক আসামি গ্রেফতার

হত্যাকাণ্ডের শিকার সুয়েব চৌধুরী

হবিগঞ্জের বাহুবল উপজেলার শঙ্করপুর প্রকাশিত সাইছা গ্রামের বাসিন্দা আব্দুল কাইয়ুম চৌধুরীর পুত্র সুয়েব চৌধুরীকে (৩২) প্রকাশ্যে-দিবালোকে কুপিয়ে হত্যাকাণ্ডের মামলায় শিফন মিয়া  (৪৫) নামে আরেকজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতার শিফন মিয়া খরিয়া গ্রামের মোক্তার হোসেনের পুত্র। 

রবিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) বিকালে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এর আগে গতকাল শনিবার রাতে বাহুবল মডেল থানার এআই মো. আবু মোকছেদ এর নেতৃত্বে একদল পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে উপজেলার গোশাই বাজার থেকে শিপনকে আটক করেন। গত ৬ সেপ্টেম্বর বিকালে চাচাত ভাই হাছান ও তার ভগ্নিপতি সাহাব উদ্দিন, ফুফাত ভাই মোনশেদ আলীসহ একদল লোক অস্ত্র সস্ত্র নিয়ে কুপিয়ে সুয়েবকে ক্ষতবিক্ষত করে ফারুক মিয়ার পুকুরে পালিয়ে যায়। পরে তাকে উদ্ধার করে প্রথমে বাহুবল পরে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এঘটনায় নিহতর মা রহিমা চৌধুরী বাদী হয়ে বাহুবল মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা করেন। মামলায় ৭ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরো ৩/৪ জনকে আসামি করা হয়েছে। 

মামলার বিবরণে জানা গেছে, উপজেলার সাতকাপন ইউনিয়নের শঙ্করপুর প্রকাশিত সাইছা গ্রামের বাসিন্দা আব্দুল কাইয়ুম চৌধুরীর মৃত্যুর পর থেকে তার বিষয়-সম্পত্তি জোরপুর্বক দখলের পাঁয়তারা করে আসছিল ফুফাতভাই মোনশেদসহ একটি প্রভাবশালী ভুমি খেকো চক্র। ওই চক্রের ভয়ে ও অহেতুক ঝামেলা এড়াতে বাহুবল সদরের হামিদ নগরে বসবাস করে আসছিলেন মৃত কাইয়ুম চৌধুরীর পরিবারের লোকজন। তারপরও স¤প্রতি ওই চক্রের অপতৎপরতা চরম আকার ধারণ করে। গত ৬ সেপ্টেম্বর বিকালে কবর জিয়ারতের উদ্দেশ্যে সাইছা গ্রামের নিজ বসতভিটায় যান মৃত কাইয়ুম চৌধুরীর একমাত্র পুত্র আবুল খায়ের চৌধুরী শোয়েব ৷ শোয়েব যখন পুকুরের ঘাটে অজু করছিলেন ঠিক তখনি পুর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী মোনশেদসহ হামলাকারীরা দলবদ্ধ হয়ে তার উপর অতর্কিত আক্রমন চালায়। এ সময় হামলাকারীদের ধারালো দা'য়ের কোপে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন শোয়েব। এতেও ক্রান্ত হয়নি নিষ্ঠুরের দল। মৃত্যু নিশ্চিত করার উদ্দেশ্যে ক্ষত-বিক্ষত শোয়েবকে সাপের মত নির্মমভাবে পেটাতে থাকে ঘাতকেরা। একপর্যায়ে মৃত্যু নিশ্চিত হয়েছে জেনে পালিয়ে যায় তারা। এদিকে এ ঘটনার পর থেকে চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভোগছেন নিহতের পুরুষশ‚ন্য পরিবার। মামলার বাদী নিহতের মা রহিমা চৌধুরী অভিযোগ করে জানান, আসামিরা তাদের নানাভাবে হুমকি-ধমকি দিচ্ছে এবং হত্যার ঘটনাকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করতে নানারকম অপপ্রচার চালাচ্ছে। তিনি সরকার ও প্রশাসের কাছে খুনীদের দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি দাবি করেছেন। 

মামলার তদন্তকারী কর্মকতা এসআই মো. আবুমোকছেদ বলেন, ‘শিফন গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিয়েছে এবং  হত্যার সময় শিপন খুনিদের সহায়তা করেছে ও সে স্বীকার করছে,  অন্যনান্য আসামীদের গ্রেফতার ও গ্রেফতারকৃত আসামী শিফনের রিমান্ড আবেদন করা হবে। এ মামলায় এ পর্যন্ত শিপন মোনশেদসহ দুইজন গ্রেফতার রয়েছেন।’

ইউ

বীরকন্যা প্রীতিলতার নামে সড়ক

প্যারিসে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত কৃতী শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা

৯০ দিনে দক্ষিণাঞ্চলে আমূল পরির্বতন

মেলোনি হতে পারেন ইতালির প্রথম নারী প্রধানমন্ত্রী  

ইভ্যালি ফিরছে স্মার্টফোন বিক্রির মধ্য দিয়ে

৫ খাবার: কার্বোহাইড্রেটে ভরপুর হলেও স্বাস্থ্যকর

স্বাধীনতার পঞ্চাশ বছরেও নৌপথ নিরাপদ নয়ঃ কাদের

নৌকাডুবি : ২৩ জনের পরিচয় মিলল

‘বিএনপি জ্বালাও পোড়াও রাজনীতি করেছে’

বিপিএলে দল পেলো না সাকিবের মোনার্ক মার্ট

ইডেন ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ

বীজন নাট্য সন্মাাননা পেলেন কবি গোলাম মাওলা জসিম

‘শারদীয় দুর্গাপূজা নির্বিঘ্ন করতে ব্যবস্থা গ্রহণ করবে সরকার’

বাংলাদেশে ফার্মাসিস্টদের নিয়োগ বাধ্যতামূলক করার দাবি

বিপিএলের ৭ ফ্র্যাঞ্চাইজির নাম ঘোষণা